মেইন ম্যেনু

অনঅ্যারাইভাল ভিসা দেয়া নিয়ে সংশয়

দুদিনের রাষ্ট্রীয় সফরকালে ভারতে বাংলাদেশি পর্যটকদের অনঅ্যারাইভাল ভিসা (ওই দেশে পৌঁছার পর পাওয়া ভিসা) দেয়ার বিষয়ে ঘোষণা দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তবে ভারতে সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন অনঅ্যারাইভাল ভিসার ঘোষণা দেয়া হলেও তা সবার জন্য প্রযোজ্য হবে না। অন্ধের মতো যে কোনো বাংলাদেশি পর্যটক যাতে এ ভিসা সুবিধা না পায় সে ব্যাপারে দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা একক সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন।

এদিকে অনঅ্যারাইভাল ভিসার ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হলেও পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত চাকমা উপজাতিসহ নির্যাতিত ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের দীর্ঘমেয়াদি ভিসা দেয়া হতে পারে।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন, ‘গোয়েন্দা সংস্থাগুলোসহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি রাজ্যের পক্ষে চাপ রয়েছে যেন বাংলাদেশকে অনঅ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা না দেয়া হয়। আমরা চিন্তা করছি এ সুবিধা সর্বজনীন ভিত্তিতে না দেয়ার। এটি কেস টু কেস ভিত্তিতে দেয়া হতে পারে।’

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশসহ ১৫০টি দেশে বন্ধুত্বের ভিত্তিতে অনঅ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা দেয়ার বিষয়টি ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বহু পুরনো প্রস্তাব।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘বাংলাদেশিদের অনঅ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা দেয়ার বিষয়টি একটি বিতর্কিত ইস্যু। অভ্যন্তরীণ ও গোয়েন্দা প্রতিবেদনে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মত দেয়া হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত কেবল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ই নিতে পারে।’