মেইন ম্যেনু

অনির্বাচিতরা সচিবালয়ে, নির্বাচিতরা জেলে

বর্তমানে অনির্বাচিতরা সচিবালয়ে বসে দেশ চালাচ্ছে আর নির্বাচিত গাজীপুর, সিলেটের মেয়ররা জেলে রয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

শুক্রবার (২০ মে) দুপুরে রাজধানীর ভাসানী মিলনায়তানে ‘বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নে শহীদ জিয়া পরিবারের অবদান’ শীর্ষক আলোচনাসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। আরাফাত রহমান কোকো যুব ও ক্রীড়া সংসদ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত হচ্ছে দাবি করে এবং এর বিরুদ্ধে সাবধান থেকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘যখনই প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৩০০ কোটি মিলিয়ন ডলারের কথা আলোচনায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির বিষয়ে আলোচনা হল তখনই জনগণের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে চক্রান্ত করা হয়।’

বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর সঙ্গে মোসাদ সম্পর্ক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে এই সরকারের খাতির এত বেশি, এত চমৎকার সম্পর্ক যে, কোন বেকুব যাবে সেখানে বসে ষড়যন্ত্র করতে? এটা বিশ্বাসযোগ্য না কি?’

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সঙ্গে ইসরায়েলের সমঝোতা হতে পারে, তারা ধর্মনিরপেক্ষ দল। কিন্তু বিএনপি তো ধর্মনিরপেক্ষ দল না।’

তিনি বলেন, ‘এর আগেও আমেরিকায় ষড়যন্ত্রের কথা বলে শফিক রেহমানের মতো একজন ভালো মানুষকে আটক করে রাখা হয়েছে।’

প্রবীণ সাংবাদিক শফিক রেহমানের বাসায় যেসব ডকুমেন্টস পাওয়া গেছে তা জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানিয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘ওই ডুকমেন্টসে যা আছে সেগুলো মানুষ জেনে গেলে ছি ছি পড়ে যাবে সারাদেশে।’

যারা মুক্তিযুদ্ধের ধারের কাছে ছিল না তারা এখন স্বাধীনতার চেতনার দোকানদার উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘গণতন্ত্রের নামে রসিকতা চলছে। পত্রিকায় দেখলাম প্রধান নির্বাচন কমিশনার ট্যাঙ্কের কথা বলছেন। আমরা বলব, এই ট্যাঙ্কের পর্যাযে তো আপনারাই নিয়ে গেছেন। আগে তো বাংলাদেশে চৌকিদার, দফাদার আর পুলিশ দিয়ে নির্বাচন হত, এখন তো রাইফেল দিয়েও পারেন না।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আলমগীর হোসেন লাবুর সভাপতিত্বে সাবেক এমপি আব্দুল গফুর, প্রাক্তন ফুটবলার আমিনুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।