মেইন ম্যেনু

‘অনেক মুক্তিযোদ্ধা রাজাকার হয়েছেন’

আদর্শচ্যুত হয়ে অনেক মুক্তিযোদ্ধা রাজাকার হয়েছেন, কিন্তু কোনো রাজাকার মুক্তিযোদ্ধা হননি বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা মহাজোট আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মোজাম্মেল হক বলেন, ‘জয়ের আনন্দ মানুষ ভুলে যায়, কিন্তু পরাজয়ের বিষাদ ভোলা যায় না। পরাজিত শক্তি এখনো তাদের আদর্শ থেকে বিচ্যুত হয়নি। কারণ তাদের কেউ এখনো মুক্তিযোদ্ধা হয়নি। বরং অনেক মুক্তিযোদ্ধা তাদের আদর্শ হারিয়ে রাজাকার হয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমেরিকাসহ পৃথিবীর অনেক দেশে রাষ্ট্র নায়কদেরকে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ড সকল হত্যার চেয়ে আলাদা। কারণ সেদিন শুধু তাকে হত্যা করা হয়নি, তার পরিবারকেও হত্যা করা হয়েছিল। খুনিরা বুঝতে পেরেছিল, তার রক্তের ছিটেফোঁটা বেঁচে থাকলে তাদেরকে শাস্তি একদিন পেতেই হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘যারা বঙ্গবন্ধুর হত্যার সঙ্গে সরাসরি জড়িত তাদের বিচার হয়েছে এবং হবে। কিন্তু যারা দেশ এবং বিদেশ থেকে কলকাঠি নাড়ছে, তারা আজও ধরাছোঁয়ার বাহিরে রয়ে গেছে। তাই আজ সময় এসেছে, এদেরকে চিহিুত করে তাদের আসল চেহারা উন্মেচিত করা।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মনিরুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি সামসুল কাওনাইন কুতুব, সংগঠনের উপদেষ্টা মেজর (অব) জিয়াউদ্দীন আহমেদ, মহাসচিব নাজমুল হাসান পাখী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহ-সম্পাদক এম এ করিম প্রমুখ।