মেইন ম্যেনু

অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ভেঙে গেল ‘পুরুষাঙ্গ’

শারীরিক মিলনের সময় হঠাৎ ‘ভেঙে’ গেল এক ব্যক্তির পুরুষাঙ্গ! অথচ এই অঙ্গে কোনো হাড় নেই, যাতে সেটি ভেঙে যেতে পারে। এ ঘটনাকে বিশেষজ্ঞরা পুরুষের ভয়ংকরতম দুঃস্বপ্নের চেয়েও খারাপ কিছু বলে মন্তব্য করেছেন।

চিকিৎসকদের কল্পনাকেও ছাড়িয়ে গেলো ঘটনাটি। বিএমজে কেস রিপোর্টস মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণাপত্রে এ কথা বলা হয়। ঘটনার পর ৩২ বছরের ওই লোক নয়া দিল্লীর এক হাসপাতালে ছুটে আসেন। পুরুষাঙ্গে যে সমস্যা নিয়ে তিনি এসেছেন তাকে বলা হয় ‘এগপ্ল্যান্ট ডিফর্মিটি’। ওই ব্যক্তির পুরুষাঙ্গে প্রচণ্ড ব্যথা হচ্ছিলো।

ডাক্তারদের তিনি জানান, প্রচণ্ড উত্তেজনা নিয়ে তিনি দৈহিক মিলন করছিলেন। হঠাৎ তার যৌনাঙ্গে হাড় ভাঙার মতো আওয়াজ হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর দেখা যায়, যৌনাঙ্গে ফ্র্যাকচার হয়েছে তার।

চিকিৎসকরা জানান, পুরুষাঙ্গে হাড় থাকে না। মূলত পেশি ছিঁড়ে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় প্রভাববিস্তার করেছে হেমাটোমা। এটি এমন এক অবস্থা যখন টিস্যুতে বেশ কিছু রক্ত জমে থাকে। শারীরিক মিলনের সময় উত্তেজিত পুরুষাঙ্গে নিরেট ট্রমা দেখা দিলে এমন ঘটনা ঘটতে পারে। এতে পুরুষাঙ্গের পেশি ছিঁড়ে যায় ও ভাঁজ হয়ে যেতে পারে।

চিকিৎসকরা বলেন, এ অবস্থা থেকে বাঁচাতে দ্রুত সার্জারি করতে হবে। তবে এর পুরনো ইতিহাস রয়েছে। অঙ্গটি বাঁকা হয়ে যাওয়া ও যন্ত্রণাদায়ক উত্তেজনা একই জাতীয় সমস্যা। পুরুষাঙ্গের এ ধরনের সমস্যা শনাক্তকরণে আল্ট্রাসাউন্ড প্রযুক্তি ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন তারা। ফ্র্যাকচার নাকি অন্য কোনো সমস্যা তা নির্ণয় সহজে করতে পারে এ পদ্ধতি।