মেইন ম্যেনু

অন্তর্বাস দেখিয়ে তোপের মুখে বিবিসি

অশালীন ভাবে নারী টেনিস খেলোয়াড়দের অন্তর্বাস দেখিয়ে তোপের মুখে পড়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। উম্বলডনে স্লো-মোশনে নারী টেনিস খেলোয়াড়দের বিশেষ অঙ্গের দৃশ্য দেখিয়ে তীব্র সমালোচনার তোপে পড়ে বিশ্বের অন্যতম প্রধান এ সংবাদ সংস্থা।

ঘটনার সূত্রপাত হয় কিকি বার্টেনস ও সিমোনা হেলেপের খেলার সময়। এই ম্যাচের ফুটেজ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়ে বিবিসি। সেখানে বারবার নারীদের পশ্চাৎদেশের শট নেয়ার অভিযোগ করেন অনেকেই। একই অভিযোগ উঠেছে কানাডিয়ান সুন্দরী ইউজেন বুশার্ড ও ডমিনিকা চিবুলকোভার ম্যাচেও।

তবে এ সমালোচনায় ঘি ঢালেন বিবিসির উপস্থাপক এন্ড্রু ক্যাসেল। রজার ফেদেরারের সঙ্গে হারার দিনে ব্রিটিশ তারকা মার্কাস উইলির বান্ধবীকে নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করেন তিনি। পরে অবশ্য নিজের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন সে উপস্থাপক।

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে রীতিমত ক্ষোভের ঝড় উঠেছে। স্যু সিমন্ডস নামে একজন টুইটারে লেখেন, ‘আমার মনে জয় স্লো-মোশন এবং ক্লোজ শটগুলো শুধু নারীদের অন্তর্বাস ও পশ্চাৎদেশ দেখানোর জন্যই নেয়া হয়েছিলো।

সুজান মানি নামে একজন লিখেন, ‘উম্বলডনে যৌনাঙ্গের ক্লোজশট নেবার কোন প্রয়োজন নেই বিবিসি।’

স্যালি ম্যাককার্থি নামে আরেকজন লেখেন, ‘সত্যিই কি উম্বলডনে এত ক্লোজ শট নেয়ার দরকার ছিলো। একজন নারী যখন উপর-নিচ লাফালাফি করছে তখনই আপনাদের ক্লোজ শট নিতে হবে?’

তবে বিবিসির পক্ষ থেকে এখনো এ ব্যপারে কোন মুখ খোলেননি। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি তারা কিছু জানেন না বলে জানান বিবিসির এক মুখপাত্র। তবে ম্যাচের হাইলাইটস নিয়ে বিশ্লেষণ করছেন তারা।