মেইন ম্যেনু

অন্ধ বউকে ভালবেসে ফুলের বাগান উপহার

ভালবাসার কোন সীমানা নেই। অসীম ক্ষমতা থাকে এই ভালবাসার মাঝে। কাল, দেশ, বর্ণ, ধর্ম কোন কিছু এর সামনে বাঁধা হয়ে দাড়াতে পারে না। শুধু প্রয়োজন বিশ্বাস আর ভালবাসার।

জাপানের এক দম্পতি যারা কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন, তাদের ভালবাসার গল্প শুনলে আপনিও ঈর্ষান্বিত হবেন। জনাব এবং জনাবা কুরোকির ভালবাসার কাহিনী আপনাদের সাথে শেয়ার করা হল।

জনাবা কুরোকি ডায়াবেটিক রোগে আক্রান্ত। যার ফলে তার চোখের দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে গেছে। কিন্তু তার স্বামী তাকে সবসময় সুখী রাখার জন্য একটি সুন্দর পদক্ষেপ নিয়েছেন। তার স্ত্রীকে সবসময় বিষণ্ণতা থেকে দূরে রাখার জন্য তিনি এক অভিনব উপায় খুঁজে পেয়েছেন। জনাব কুরোকি তার স্ত্রীর জন্য ফুলের বাগান তৈরি করে দিয়েছেন। সে তার চোখ দিয়ে না দেখতে পেলেও ফুলের সুগন্ধি যেন সে অনুভব করতে পারে তার সুব্যবস্থা করে দিয়েছেন।

প্রায় হাজার রকমের ফুল সে গত দুই বছর ধরে চাষ করছেন। যার ফলাফল সেই ফুলগুলোর মত সুন্দর। এখন তার স্ত্রী ঘর থেকে বাহিরে এসে বাতাসে তার ভালবাসার মানুষের চাষ করা ফুলের সুবাস উপভোগ করেন।

এখন বিশ্বের অনেক মানুষ তাদের ভালবাসার এই বাগান উপভোগ করতে এখানে বেড়াতে যেতে চান। এই দম্পতি ১৯৫৬ সালে বিয়ে করে এই জমির নিকটে বসবাস করা শুরু করেন। তাদের ঘরে দুইজন সন্তান রয়েছে।

কিন্তু হঠাৎ জনাব কুরোকি সাহেবের স্ত্রীর চোখের জ্যোতি কমে যাবার ফলে তাদের সংসারে দুঃখ নেমে আসে। সে নিজেকে যখন হারিয়ে ফেলছিলেন তখন তার স্বামী তার হাত ধরে তাকে জীবনের দিকে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন। সে হয়ত পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ স্বামী পেয়েছেন। যা তার হাসি দেখলে বোঝা যায়।–সুত্র: ইন্ডিয়া টাইম্‌স।