মেইন ম্যেনু

অন্য লোকের যেসব কথায় বিয়ের আগে মোটেও কান দেবেন না

বিয়ে আমাদের জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। সকলেই নিজের বিয়ে, বিশেষ করে মেয়েরা বিয়ে নিয়ে অনেক বেশী ভাবেন। বিয়ে ঠিক হবার পর সব মেয়েই খুব নার্ভাস থাকেন পুরো ব্যাপারটা নিয়ে। একে তো নিজের মা-বাবা-পরিবারকে ছেড়ে দূরে চলে যাবার ভয়, অন্যদিকে আগামী জীবনটা কেমন হবে কিংবা সকলের সাথে মানিয়ে নিতে পারবেন কিনা সেই দুশ্চিন্তা। এসবের মাঝেই অনেকে যেচে আসেন নানান রকমের উপদেশ দিতে, আলতু ফালতু কথায় জ্ঞান জাহির করেন। সব মিলিয়ে বিয়ের আগে বেচারি কনে বিনা কারণেই হয়ে পড়েন খুবই নার্ভাস। চলুন, জেনে নিই এমন ৫টি কথা ও সেগুলো থেকে বাঁচার উপায়।

১) বিয়ের সময়ে সবচাইতে বেশী কনেকে যেটা শুনতে হয়, সেটা হচ্ছে সকলের উপদেশ। যার সাথেই দেখা হোক না কেন, সকলেই কিছু না কিছু উপদেশ দেবেনই দেবেন। এখন সবার উপদেশ যদি শুনতে জান, তাহলে অবস্থাটা কী হবে ভাবুন তো? নিজের পরিবারের বাইরে অন্য কারো উপদেশ কানে নেয়ার কোন দরকার নেই। জীবন আপনার, সিদ্ধান্ত আপনিই নিন।

২) একদল মানুষ দেখা যায়, যারা বিয়ের কথা শুরু মাত্রই কনেকে নানান রকম ভয় দেখান। বিশেষ করে শ্বশুরবাড়ি সম্পর্কে। শ্বশুরবাড়ি কখনো ভালো হয় না, শাশুড়ি কখনো মা হতে পারেন না ইত্যাদি কথায় বেচারি কনের মনকে বিয়ের আগেই বিষিয়ে দেন। এমন মানুষ থেকে শত হস্ত দূরে থাকুন। আর বিয়ের পর কোনভাবেই তাকে নিজের জীবনে প্রবেশ করতে দেবেন না।

৩) নিজের বোন বা বান্ধবীদের মাঝেই এমন অনেককে পেয়ে যাবেন, যারা কিনা দাম্পত্য নিয়ে ভয় দেখাবে আপনাকে। বিয়ের পর স্বামী বদলে যান, বিয়ের আগে যেমন ভালোবাসেন বিয়ের পর আর তেমনটা বাসবেন না, বিয়ের পর স্বামী হয়ে যাবেন খিটখিটে আর অচেনা ইত্যাদি হরেক রকম কথা বলবেন তাঁরা আপনাকে। এসব কানে নেবেন না মোটেও। মনে রাখবেন, সকল মানুষ এক রকম হয় না। সকলের জীবনও এক রকম হয় না।

৪) এভাবে সাজলে ভালো লাগবে, অমুক পার্লারে অবশ্যই যাওয়া চাই, অমুক শাড়ি-গয়না না কিনলে চলবেই না ইত্যাদি হরেক রকম উপদেশের কোন অভাব হবে না। এসব উপদেশের ভিড়ে নিজের আসল সুখটুকুকে দূরে ঠেলে দেবেন না। বিয়ে মানে শাড়ি-গয়না-সাজ নয়, বিয়ে মানে প্রিয়জনের সাথে বন্ধন। আর একজনকে যেটা মানিয়ে গেছে, আপনাকেও মানাবে এমন কোন কথা নেই। তাই অস্থির হবেন না লোকের কথায়।

৫) অনেকেই বিয়ের কনেকে নিজের তিক্ত দাম্পত্যের নানান অভিজ্ঞতা বা বিয়ের দিনের নানান দুর্ঘটনার গল্প শুনিয়ে থাকেন। এগুলো শুনে মনে হতেই পারে যে তাঁরা আপনার উপকার করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু আসলে এগুলোতে কান দিলে উল্টো নতুন জীবন শুরু আগেই মন বিষয়ে যাবে আপনার। তাই কেউ এসব বলতে শুরু করলেই পাশ কাটিয়ে যান।

সূত্র- বিউটি মান্ত্রা