মেইন ম্যেনু

অপরূপ যত বিষাক্ত ফুলেরা!

ফুল কে না ভালোবাসে? কিন্তু অপরূপ সৌন্দর্যে ভরপুর এই ফুলের ভেতর লুকিয়ে থাকা ভয়াব বিষের কথা খুব কমই জানি আমরা। মানুষের ক্ষেত্রে যেমন কেবল বাইরের সৌন্দর্যটাই সবকিছু নয়, ঠিক তেমনি এই একই কথা খাটে বাহারি সব ফুলের ক্ষেত্রেও। অসম্ভব সুন্দর অনেক ফুল রয়েছে পৃথিবীতে, আপনার চারপাশে। যেগুলোর খানিকটা ছোঁয়া বা সংস্পর্শই আপনার জন্যে হতে পারে প্রাণসংহারক। চলুন দেখে আসি এমনই কিছু ফুলকে।

১. ওয়াটার হেমলক

বিষাক্ত যত ফুল রয়েছে পৃথিবীতে সেগুলোকে আগে-পিছে করে সাজালে সবচাইতে প্রথমে যার নাম আসে সেটি হচ্ছে ওয়াটার হেমলক। প্রচন্ড বিষে ভরপুর এই ফুলটির বিষ একবার শরীরে প্রবেশ করলেই বমি, মাথা ঘোরা ও আরো নানারকম প্রদাহ দেখা যায়। ফুলগুলো বিষাক্ত হলেও ওয়াটার হেমলকের সবচাইতে বিষাক্ত অংশটি হচ্ছে এর শিকড় ( প্ল্যানেট ডেডলি )। যার মাধ্যমে মানুষের মৃত্যু হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক।

২. করবী

করবী ফুল আমাদের কাছে অত্যন্ত পরিচিত ও আকর্ষনীয় হলেও মানুসের শরীরে প্রচন্ড রকমের বিষক্রিয়া সৃষ্টি করে আগাগোড়া বিষে মোড়া এই ফুল ও ফুলের গাছটি। এই উপমহাদেশ ও অন্যান্য কিছু পার্শ্ববর্তী উপমহাদেশে করবী ফুলের বিষে আত্মহত্যা করার সংখ্যাটাও খুব একটা কম নয়। সামান্য পানির মাধ্যমেই নিজের বিষ মানবদেহে ছড়িয়ে দিতে পারে এই ফুলটি। শরীরে বিষ প্রবেশের সাথে সাথেই হৃদপিন্ডের গতি বেড়ে যায় এবং পরবর্তীতে একেবারের মতন সেটা থেমে যায় ( লাইভ সায়েন্স )।

৩. রডোডেনড্রন

লাল রঙ এর অসম্ভব সুন্দর দেখতে এই ফুলগুলো সবচাইতে বেশি দেখা যায় আমাদের পাশের দেশ নেপালে। নেপালের জাতীয় ফুল এটি। তবে সেই সাথে অনেক বেশি বিষাক্তও। এতে মধু থাকে খানিকটা। তবে এর পাতাগুলো মুখে দেওয়ার সাথে সাথেই মুখ পুড়ে যায় মানুষের। বমি এবং ডায়রিয়ার উপদ্রব তো হয়ই, সেই সাথে এ ফুলগুলো মুখে দেওয়ার পরপরই শরীরে দেখা যায় ছোটছোট ফুসকুড়ি। যার শেষ পরিণতি গিয়ে দাড়ায় হৃদস্পন্দন থেমে যাওয়াতে। চিকিত্সক না ডেকে আনলে খানিক সময়ের ভেতরে কোমায় চলে যেতে মারে মানুষ এ ফুলটির বিষক্রিয়ায়। ( বিটি )।

৪. ধুতুরা ফুল

আমদের গ্রামবাংলার খুব পরিচিত একটি ফুল ধুতুরা ফুল। এ ফুল খেয়ে অনেক আগ থেকে মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটতে শোনা যায়। অস্থিরতা, হ্যালুসিনেশন, শুষ্ক ও লাল ত্বক এবং মৃত্যু- এর সবগুলোই হয়ে থাকে ধুতরা ফুল গ্রহনের মাধ্যমে( এনসিবিআই )। ইংরেজীতে এদেরকে ডেভিলস ট্রাম্ফেট বলেও ডাকা হয়।

৫. কলা লিলি

জানটেডেসিয়া নামক এই অত্যন্ত সুন্দর ও বিভিন্ন রঙ এর ফুরটিকে কলা লিলি বলেও চেনে অনেকে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে খুঁজে পাওয়া যায় এই ফুলগুলোকে। তবে আর দশটা ফুলের চাইতে একটু ভিন্ন কলা লিলিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে রাসায়নিক পদার্থ। মাত্র একটি পাতার মাধ্যমে মানুষকে মৃত্যুর দোরগোড়ায় পোঁছে দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে এই ফুলের। একবার চীনের একটি রেষ্টুরেন্টে খাবারের ভেতরে ভুল করে একটি কলা লিলির পাতা পড়ে গেলে পুরো খাবারটি বিষাক্ত হয়ে ওঠে এবং রেষ্টুরেন্টের সবাইকে হাসপাতালে পাঠাতে হয় ( লিস্টভার্স )।

ফুল সুন্দর। কিন্তু সব সুন্দরেই মধুরতা থাকে। কিছু কিছু সুন্দর জন্ম নেয় অসম্ভব তীব্র গরল বুকে নিয়ে। আর তাই সুন্দরকে ভালোবাসার আগেই দেখে নিন এর ভেতরটাকেও। জেনে নিন সবটা। কে জানে, হয়তো এই একটুকরো সৌন্দর্যের লোভই আপনাকে পৌঁছে দেবে মৃত্যুর আঙ্গিনায়!