মেইন ম্যেনু

অপেক্ষার যেন শেষ নেই

ঈদের আনন্দ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ভাগাভাগি করতে বাড়ি ফিরছে মানুষ। কিন্তু সময় মত গাড়ি না পাওয়ায় যাত্রীদের অপেক্ষার যেন শেষ হচ্ছে না।

বুধবার রাজধানীর অন্যতম বাস টার্মিনাল গাবতলী ও মহাখালী গিয়ে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে।

রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলো ঘুরে দেখা গেছে, গাবতলী, মহাখালী বাস টার্মিনালে বুধবার সকাল থেকে ঘরমুখো মানুষের ভিড়। তবে সময়মতো বাস না ছাড়ায় যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা গেছে।

স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে বাড়ি ফিরছে মানুষ। কিন্তু বাস কাউন্টারে গিয়ে দেখা গেছে, বাসের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষায় আছে যাত্রীরা।

বাড়ি ফেরার আনন্দযাত্রায় ভোগান্তির শুরু যেন বাস কাউন্টার থেকেই শুরু হচ্ছে। অবশ্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা শেষে যখন নির্ধারিত বাসে চড়তে সক্ষম হচ্ছে, সবার মুখে তখন স্বস্তির হাসি ফুটে উঠছে।

রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালে সিলেটগামী মোহাম্মদ আরিফ হোসেনের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, সকাল ৮টার সময় এনা পরিবহণের একটি বাসের টিকিট কেটেছেন প্রায় সপ্তাহখানেক আগে। তাই খুব সকাল সকাল কাউন্টারে এসে হাজির হয়েছেন।

ক্ষোভের সঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখন বাজে সকাল সাড়ে ১০ টা। কিন্তু বাস ছাড়াতো দূরের কথা, বাস এখনো টার্মিনালে এসেই পৌঁছায়নি। কখন বাস আসবে আর কখন বাড়িতে গিয়ে পৌঁছাতে পারব, বুঝতে পারছি না।’

কথা হয় এনা পরিবহণের কাউন্টার ম্যানেজারের সঙ্গে। তিনি বলেন, যানজট, খানাখন্দে ভরা সড়ক, চাঁদাবাজি, পরিবহণ শ্রমিক-পুলিশের হয়রানিসহ নানা কারণে বাস আসতে দেরি করছে। তবে বাস আসার সঙ্গে সঙ্গেই আবার ছেড়ে যাবে।

কোরবানির হাটের কারণে যানজট থাকায় বাস সময় মতো ছাড়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

গাবতলীতে যাত্রীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাসের জন্য অপেক্ষা করছে। কিন্তু তাদের কাঙ্ক্ষিত সেই বাসটি নজরে মিলছে না। তাদের মনের ভেতরে শুধু একটাই প্রশ্ন ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে, কখন বাস আসবে আর কখন নিজ গন্তব্যে গিয়ে পৌঁছাবে তারা।

গাবতলী বাস কাউন্টারে বাসের অপেক্ষায় থাকা কাওসার মাহামুদ নামের একজনের সঙ্গে কথা হয়। তিনি বলেন, ‘আমি খুলনা যাওয়ার জন্য গত ১৩ সেপ্টেম্বর ঈগল পরিবহণের কাউন্টারে এসে টিকিট সংগ্রহ করি। টিকিটটি তখন হাতে পেয়ে খুব আনন্দ পেয়েছিলাম। ভেবেছিলাম, এবারের ঈদে বাড়িতে যেতে হয়তো খুব বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। কিন্তু এখন দেখি আমার সে ভাবনা ছিল ভুল।’

তিনি বলেন, ‘মঙ্গলবার বিকেল ৯টায় গাড়ি ছাড়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন বাজে সাড়ে ১০টা। কিন্তু এখন পর্যন্ত গাড়ির কোনো হদিস পাচ্ছি না। ভেবে পাচ্ছি না, কখন বাস আসবে আর কখন বাড়িতে যেতে পারব!’

গাড়ি কখন আসবে, এ ব্যাপারে কাউন্টারের কাউকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, কাউন্টারে জিজ্ঞাসা করলে শুধু একটা কথাই বলে, যানজটের কারণে একটু দেরি হচ্ছে। কিছুক্ষণের মধ্যেই গাড়ি এসে পড়বে।

যাত্রীদের এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঈগল কাউন্টারের ম্যানেজার মোহাম্মদ হান্নান জানান, ঈদের জন্য আরিচা ফেরিঘাটে অতিমাত্রায় যানজট সৃষ্টি হওয়ার কারণে বাস আসতে পারছে না।

তিনি বলেন, সাধারণত ঈদুল ফিতরের চেয়ে ঈদুল আজহার সময় যানজট বেশি হয়। কারণ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কোরবানির গরু আসে রাজধানীতে। তাই এই সময়টা ফেরিতে বাস পারাপারে খুব সমস্যায় পড়তে হয়। তবে আসা করা যাচ্ছে, এই সমস্যা আজকের পর আর থাকবে না।