মেইন ম্যেনু

অবাক করে দেওয়া অদ্ভুত ৬টি হোটেল!

ভ্রমণে বিভিন্নরকম বস্তুর আকর্ষণ থাকে বিভিন্ন ভ্রমণকারীর। কেউ বা আগ্রহী থাকেন প্রকৃতির সৌন্দর্য্য দর্শনে, কেউ বা চান ঐতিহ্যবাহী খাবারগুলো চেখে দেখতে, কেউ আবার খুঁজে খুঁজে বিশেষ উৎসবের সময় ভ্রমণে যান উৎসবের আনন্দ নিতে। কারও কারও আকর্ষণগুলো হয় অদ্ভুত জিনিসের প্রতি, অদ্ভুত জায়গা, খাবার, হোটেল ইত্যাদি খুঁজে বেড়ান তারা। তাদের আকর্ষণ করতে পৃথিবীর নানা দেশে গড়ে উঠেছে অদ্ভুত কিছু হোটেল। জেনে নিই তাদের কথা।

১। বালির হোটেল, ওয়েমাউথ বীচ
নামেই বুঝতে পারছেন ক্ষণস্থায়ী হোটেল এটি। ইংল্যান্ডের ওয়েমাউথ বীচের এই হোটেলটি একটি মূর্তিমান বিস্ময়। এখানে সবই বালির। বালির বিছানা, সোফা, টেবিল সবই ব্যবহার যোগ্য। বিশ্বের সেরা স্যান্ড ক্যাসেল শিল্পীরা এক সপ্তাহে তৈরি করেন এত সব কিছু। ১০০০ টন বালি লেগেছিল পুরো হোটেলটি তৈরি করতে। সবই আছে এই হোটেলে, নেই শুধু টয়লেট!

২। লবণ হোটেল লুনা সালাদা, বলিভিয়া
হোটেলের দেয়াল এমনকি মেঝেও লবণের ক্রিস্টাল দিয়ে তৈরি। মিলিয়নেরও বেশী লবণের ব্লক তৈরি করা হয়েছিল হোটল নির্মাণের কাজে ব্যবহারের জন্য। দেয়াল, আসবাবপত্র, সিলিং সবই বানানো হয় সেই ব্লক দিয়ে। হোটেলটি অবস্থিত বলিভিয়ার কলচানি গ্রামের পাহাড়ে, যেখান থেকে সেখানকার বিখ্যাত লবণের লেকটির মনোরোম দৃশ্য উপভোগ করা যায়। লুনা সালাদা একটি অনন্য চমৎকার হোটেল। এখানে শান্ত সুনিবিড় পরিবেশ মনকে প্রশান্ত করে। এক রাত এখানে অবস্থানের জন্য আপনাকে গুণতে হবে ১৫০ ডলার, কিন্তু এখানে থাকার দূর্দান্ত অভিজ্ঞতার তুলনায় টাকা আসলে কিছুই মনে হবে না আপনার।

৩। Waldseilgarten Höllschlucht, বাভারিয়া
জার্মানিতে অবস্থানের জন্য একটি চমৎকার জায়গা এটি। সারা রাত খোলা আকশের নীচে থাকতে কেমন লাগবে আপনার? নিশ্চয়ই প্রকৃতির মাঝে অনন্য অভিজ্ঞতাটি আপনাকে হতাশ করবে না। তবে উচ্চতার ভীতি থাকলে একটু চিন্তা করুন। কারণ এই হোটেলের স্টাইলই হল গাছে ঘুমানো। শক্ত গাছের গুঁড়ির সাথে বাধা বিছানায় থাকতে ছোট্ট একটি গাছে চড়ার কোর্সও করতে হবে আপনাকে। বিছানায় দোল খেতে খেতে দেখতে পারবেন শ্বাসরুদ্ধকর পাহাড়ি দৃশ্য। তবে এক রাতের জন্য পকেট থেকে খসবে ৩০০ ডলার।

৪। ম্যাজিক মাউন্টেন হোটেল, চিলি
এ যেন বনের ভেতর রহস্যময় পাহাড়। এটি পাতাগোনিয়ার হুইলো হুইলো রিজার্ভে অবস্থিত। হোটেলটি তৈরি করা হয়েছে পাহাড়ের মত করে আর প্রবেশ করতে হয় রহস্যময় এক ব্রিজের উপর দিয়ে। হোটেলটিকে ঘেরা আছে ঘন বন। পাহাড়ের উপর দিয়ে বয়ে গেছে ঝর্ণা। চিলির এই হোটেলটি খুবই মান সম্পন্ন, আধুনিক। কিন্তু এর পরিবেশ আপনাকে প্রকৃতির গহীনে নিয়ে যাবে, প্রকৃতি আর প্রযুক্তির এ এক চমৎকার যাদুকরি মেলবন্ধন। একটি কক্ষের ভাড়া এখানে ২১৫ ডলার।

৫। ট্রি হোটেল, সুইডেন
গাছের উপর বাড়ি বানিয়ে থাকার স্বপ্ন দেখেছেন কখনো? আপনার সেই স্বপ্নের বাড়ি কিন্তু এই হোটেলটি। হারাডার নিরিবিলি গ্রামে ৬ মিটার উঁচুতে গাছের উপর ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে বাড়িটি। ভিন্ন ভিন্ন আর্কিটেক্টরা এর বিভিন্ন কক্ষ নকশা করেছেন। এর একটি কক্ষের নাম ‘ মিরর কিউব’। কারণ কক্ষটির বাইরের দেয়াল পুরোপুরি আয়নার আর ভেতরে সাজানো প্রাকৃতিক দৃশ্যের প্রতিবিম্ব দ্বারা। উড়ন্ত পাখিরা যাতে হোটেলের আয়নায় বিভ্রান্ত হয়ে আহত না হয় তাই এক বিশেষ ধরণের আল্ট্রাভায়োলেট ফয়েল ব্যবহার করা হয়েছে। এখানে প্রতি রাত ৫৫০ ডলার করে খরচ হবে আপনার।

৬। বরফের হোটেল, সুইডেন
৬০০০ স্কয়ার মিটারের বরফ হোটেলটি এক শান্তি আর শীতলতার আবেশ নিয়ে অপেক্ষমান পর্যটকদের। এখানে বরফের বিছানায় এক প্রকার থারমাল স্লিপিং ব্যাগে ঘুমাতে হবে আপনাকে। জুকাসজার্ভির কিরুনা থেকে ১৩ কিলোমিটার দূরত্বে এর অবস্থান। হোটেলটি সারা বিশ্বেই এক চমকপ্রদ হোটেল হিসেবে খ্যাত। তবে ১২ বছরের ছোট বাচ্চাদের জন্য হোটেলটি থাকার পক্ষে মানানসই নয়। এখানে সপ্তাহ শেষে আপনার খরচ হবে ১০০০ ডলার। প্রতি বছর গড়ে ৫০,০০০ মানুষ হোটেলটি ভাড়া নেয়।