মেইন ম্যেনু

অভাবনীয় উপকার কাঁচা মরিচে

তরকারিতে স্বাদ বাড়াতে কাঁচামরিচ সব সময় সেরা। খাওয়ার রুচি ফেরাতেও কাঁচামরিচের তুলনা হয় না। পুষ্টিগুণের দিক থেকে এই কাঁচামরিচের অবস্থান অনেক উপরে। প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচামরিচে খাদ্যশক্তি আছে ৪০ কিলোক্যালরি, সোডিয়াম ৭ গ্রাম, পটাসিয়াম ৩৪০ গ্রাম, কার্বোহাইড্রেটস ৯ গ্রাম। এছাড়া রয়েছে ভিটামিন এ, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ডি, ভিটামিন সি, লৌহ, ম্যাগনেসিয়াম প্রচুর পরিমানে। এসব উপদান প্রতিনিয়ত আপনার শরীরকে নানা রোগ থেকে রক্ষাকারী ভূমিকা পালন করে। জেনে নেবো আমাদের শরীরের জন্য কাঁচামরিচের অভাবনীয় উপকারিতা সম্পর্কে।

* খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন ১টি কাঁচা শরীরের জন্য অতি প্রয়োজনীয় অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের যোগান দেয়। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট দেহের কঠিন সব রোগ প্রতিরোধে দারুণ সহায়তা করে।

* প্রতিদিন একটি করে কাঁচা মরিচ খেলে রক্ত জমাট বাধার ঝুঁকি কমে যায়।

* নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে হৃদপিণ্ডের বিভিন্ন সমস্যা কমে যায়।

* কাঁচা মরিচ মেটাবলিসম বাড়িয়ে ক্যালরি পোড়াতে সহায়তা করে।

* কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিটা ক্যারোটিন আছে যা কার্ডোভাস্ক্যুলার সিস্টেমকে কর্মক্ষম রাখে।

* কাঁচা মরিচ রক্তের কোলেস্টেরল কমায়।

* কাঁচা মরিচে আছে ভিটামিন এ যা হাড়, দাঁত ও মিউকাস মেমব্রেনকে ভালো রাখতে সহায়তা করে।

* কাঁচা মরিচে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে যা মাড়ি ও চুলের সুরক্ষা করে।

* নিয়মিত কাঁচা মরিচ খেলে নার্ভের বিভিন্ন সমস্যা কমে।

* প্রতিদিন খাবার তালিকায় অন্তত একটি করে কাঁচা মরিচ রাখলে ত্বকে সহজে বলিরেখা পড়ে না।

* কাঁচা মরিচে আছে ভিটামিন সি। যেকোনো ধরণের কাটা-ছেড়া কিংবা ঘা শুকানোর জন্য কাঁচা মরিচ খুবই উপকারী।

* কাঁচা মরিচের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি শরীরকে জ্বর, সর্দি, কাশি ইত্যাদি থেকে রক্ষা করে।