মেইন ম্যেনু

অভিনব এক আবিস্কারের জন্য পুরস্কার পেলো কিশোরী

মাটি যাতে পানি ধরে রাখতে পারে তার জন্য কমলালেবুর খোসা ব্যবহার করে শোষণে সক্ষম পদার্থ উদ্ভাবন করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার স্কুল ছাত্রী কিয়ারা নিরঘিন। এবং গুগুলের বিজ্ঞান মেলায় এর জন্য পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

১৬ বছরের নিরঘিন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের হারিয়ে ৫০ হাজার ডলারের এই বৃত্তি পুরস্কার জিতে নিয়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় সাম্প্রতিক খরার পটভূমিতে নিরঘিন তার প্রকল্প তুলে ধরেন ‘খরা মোকাবেলায় ফল’ এই নাম দিয়ে।

১৯৮২ সালের পর সবচেয়ে ভয়াবহ খরার শিকার হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। খরায় শস্যের ফলন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বহু পশুপাখি মারা গেছে।

জোহানেসবার্গের স্কুল ছাত্রী ৪৫ দিন ধরে তিনবার পরীক্ষা চালানোর পর কমলালেবুর খোসার সঠিক মিশ্রণ তৈরি করতে পেরেছেন যা কৃত্রিম পলিমার দিয়ে তৈরি শোষণে-সক্ষম পদার্থের বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করা যাবে। নিরঘিন বলেছেন, ফলের রস প্রস্তুতকারক শিল্প থেকে ফেলে দেয়া বর্জ্য ব্যবহার করে তিনি এই পদার্থটি তৈরি করেছেন।

‘এই পদার্থটি পুরোপুরি জৈব; ফলে পরিবেশের ক্ষতি করে না। সস্তা এবং কৃত্রিম জিনিসের থেকে এর পানি ধারণ ক্ষমতা অনেক বেশি। এই কমলা খোসার মিশ্রণ তৈরি করতে শুধু প্রয়োজন বিদ্যুত এবং সময়। এর জন্য অন্য কোনো উপাদান বা সরঞ্জাম দরকার নেই,’ বলেছেন কিয়ারা নিরঘিন।

স্কুল ছাত্রী কিয়ারার হাতে তার পুরস্কার অর্থ তুলে দেয়া হয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায় গুগুলের বার্ষিক মেলায়। নিরঘিন বলেছেন, তার আশা কৃষকরা এতে অর্থ এবং তাদের ফসল দুইই বাঁচাতে পারবে। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী স্কুল শিক্ষার্থীরা। সূত্র: বিবিসি