মেইন ম্যেনু

অভিবাসী ঠেকাতে সীমান্তে বেড়া দিল হাঙ্গেরি

সীমান্ত দিয়ে যাতে আর কোন অভিবাসী প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য সীমান্তে সামরিক সুরক্ষা জোরদার করেছে হাঙ্গেরি। অভিবাসীদের ঢল প্রতিহত করতে দেশটির দক্ষিণাংশের সীমান্ত এলাকায় সামরিক পাহাড়া জোরদারে মহড়া চালিয়ে যাচ্ছে প্রতিরক্ষা বাহিনী। খবর বিবিসি’র।

হাঙ্গেরি সরকারের দাবি, সার্বিয়া থেকে প্রতিদিন হাজার অভিবাসী সীমান্ত অতিক্রম করে হাঙ্গেরিতে ঢুকে পড়েছ। সীমান্ত অতিক্রম করে ভেতরে প্রবেশ থামাতে সীমান্ত পুলিশকে সহযোগিতা করতে সীমান্তে সেনাবাহিনী মোতয়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাঙ্গেরি সরকার।

বিবিসি’র খবরে বলা হয়, দেশটির ঝুঁকিপূর্ণ সীমান্ত বরাবর ইতিমধ্যেই কাঁটাতারের বেড়া নির্মান করা হয়েছে। দেশটির সংসদ সদস্যরা মনে করছেন চলতি মাসের শেষের দিকে নির্বাচনে প্রত্যাশিত ভোট পেতে আগে সীমান্তে সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

যু্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়া ও আফ্রিকার কয়েকটি দেশের অভিবাসী প্রত্যাশীদের আশ্রয় দিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নভূক্ত ২২টি দেশকে ১ লাখ ৬০ হাজার আভিবাসী গ্রহণে ইউরোপীয় কমিশনের পক্ষ থেকে দেশগুলোর নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জাননো হয়েছে। এতে জোটভূক্ত অধিকাংশ দেশেরেই সমর্থন রয়েছে।

গোটা ইউরোপজুরে অভিবাসীদের নিয়ে যখন অনিশ্চয়তা ও দ্বিধাদ্বন্দ্বের নিরসনে বিভিন্ন পরিকল্পনা ও প্রস্তাবনা উত্থাপিত হচ্ছে ঠিক সেই মুহুর্তে অভিবাসী ঠেকাতে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করে বন্ধ করে দিচ্ছে হাঙ্গেরি সরকার।