মেইন ম্যেনু

“অভিষেকের মহড়ায়” সিরিজ জয়ের নকশা

এত পরীক্ষা-নিরীক্ষা দলের জন্য ক্ষতির কারণ হবে না তো? ক্ষতি না লাভ হবে, তা এই সিরিজে জানার উপায় থাকছে না। অপেক্ষা করতে হবে এশিয়া কাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত। এক সঙ্গে ৪/৫ জন খেলোয়াড়ের টি-টোয়েন্টি অভিষেক! কোন কালে কে দেখেছে! আজ কিন্তু দেখার সুযোগ হতে পারে ক্রিকেট বিশ্বের। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে অভিষেকের মহড়া হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দলে। ম্যাচটি শুরু হবে বেলা তিনটায়।

সবচেয়ে বড় পরিবর্তন আসছে পেস আক্রমণে। মুস্তাফিজ এবং আল-আমিন স্কোয়াডে নেই। তাদের পরিবর্তে অভিষেকের প্রহর গুনছেন বিপিএলের আবিষ্কার আবু হায়দার রনি এবং মোহাম্মদ শহীদ। রনি যে কোনো ফরম্যাটের ক্রিকেটে নতুন হলেও, শহীদ আগে টেস্ট খেলেছেন। টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামা হয়নি।

গতকাল অনুশীলনের হাবভাব দেখে মনে হয়েছে তাসকিনকেও প্রস্তুত করছেন হাথুরুসিংহে।

আজ অভিষেকের খবর পাওয়া গেছে মোসাদ্দেক হোসেন এবং মুক্তার আলীরও। মুশফিকের জায়গায় মুক্তার সুযোগ পেতে পারেন। তামিমের জায়গায় খেলার সম্ভাবনা আছে ইমরুল কায়েসের। তামিম সন্তান সম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে ছুটি নেয়ার কথা বলেছেন।

বাংলাদেশ আজ জয় পেলে পঞ্চম বারের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতবে। দলের পরিবেশ দেখে মনে হচ্ছে জয়ের চেয়ে সংশ্লিষ্টদের কাছে পরীক্ষা-নিরীক্ষাই মুখ্য। বাংলাদেশ এই সিরিজে ব্যাটিংয়ের দিকে বাড়তি নজর দিচ্ছে। সিঙ্গেল নেয়ার প্রবণতা কমে গেছে উল্লেখযোগ্যহারে।

মাশরাফিদের মতো জিম্বাবুয়েও বেশ কয়েকজনকে নাড়িয়ে দেখবে এই ম্যাচে। গত ম্যাচে নিয়মিত অধিনায়ক এল্টন চিগুম্বুরাকে একই কারণে বিশ্রাম দেয়া হয়েছিল। আজ মুস্তাফিজ, মুশফিক, আল-আমিন না থাকার সুযোগ নিতে চাইবে তারা। বাংলাদেশকে নবীনের কাঁধে ভর করে সেই ‘সুযোগ’ নিতে চাওয়ার ইচ্ছায় ফুলস্টপ ফেলতে হবে।