মেইন ম্যেনু

অর্ধেকে নেমেছে কাপ্তাইয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন

পানির স্তর ক্রমাগত নিচে নেমে যাওয়ায় উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের। পানি স্বল্পতায় দৈনিক ২৪২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতার এ কেন্দ্রটিতে এখন উৎপাদিত হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

অনাবৃষ্টি আর খরায় কাপ্তাই হ্রদে পর্যাপ্ত পানি না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মো. আব্দুর রহমান।

তিনি জানান, অনাবৃষ্টির কারণে লেকের পানির স্তর দিন দিন নিচে নেমে যাওয়ায় বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উৎপাদন অনেক হ্রাস পেয়েছে। বর্তমানে লেকে স্বাভাবিকের চেয়ে ৬ ফুট উচ্চতার পানি কম রয়েছে।

সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ১০৯ এমএসএল (মীনস সী লেবেল) পানির ধারণ ক্ষমতার এই লেকে বর্তমান সময়ে ৮২ এমএসএল পানি থাকার কথা। কিন্তু অনাবৃষ্টির কারণে পানির স্তর অব্যাহতভাবে নিচে নামতে থাকায় লেকে বর্তমানে পানির স্তর রয়েছে ৭৬ এমএসএল। যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৬ এমএসএল কম। স্তর স্বাভাবিকের চেয়ে নিচে নেমে যাওয়ায় লেকের পানির ওপর নির্ভরশীল এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উৎপাদন এখন অর্ধেকেরও নিচে নেমে গেছে।

এই অবস্থা চলতে থাকলে লেকে পানির স্তর অচিরেই ৬৬ ফুট এমএসএলে নেমে যাবে। পানির স্তর এই পর্যায়ে নেমে গেলে বিদ্যুৎ উৎপাদন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। সেই অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে বর্তমানে কিছুটা রেশনিং করে কাপ্তাইয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হচ্ছে।