মেইন ম্যেনু

অলিম্পিকই মেলাল ‘চিরশত্রু’ দুই কোরিয়াকে

চারিদিকে সন্ত্রাসবাদের আতঙ্ক আর যুদ্ধের দামামা। কোরিয়ান উপদ্বীপেও ধারাবাহিকভাবে অস্ত্রের ঝনঝনানি চলছেই। দুই ‘শত্রু’ রাষ্ট্র সরাসরি যুদ্ধে না জড়ালেও অস্ত্রের মহড়া দেখা যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। এই বৈরিতার মধ্যেও খেলাধুলা মানুষকে কাছে আনে। চলমান রিও অলিম্পিকেও তার প্রমাণ মিলল। উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার দুই অ্যাথলেটকে দেখা গেল একই সঙ্গে। একপর্যায়ে একে অপরের সঙ্গে সেলফি তুলতেও ব্যস্ত হয়ে পড়লেন তারা।

রিও অলিম্পিকে নিজেদের ইভেন্টকে সামনে রেখে চলা ট্রেনিং সেশনেই উত্তর কোরিয়ার হং উন জং এবং দক্ষিণ কোরিয়ার লি ইউন জুকে একত্রে দেখা যায়। অলিম্পিকের আয়োজনকে এভাবে সার্থক করে তোলার জন্য বিশ্বব্যাপী ব্যাপক প্রশংসিত হচ্ছেন ঐ দুই কোরিয়ান নারী।

সাম্প্রতিক সময়ে দুই কোরিয়ার মধ্যকার বিবাদ মীমাংসার জন্য আন্তর্জাতিক মহল উদ্যোগ নিলেও কোরিয়া উপদ্বীপের অস্থির অবস্থা কিছুতেই কাটিয়ে ওঠা যাচ্ছে না। বরং গত কয়েক মাসে আরো অবনতি ঘটেছে। সর্বশেষ পিয়ংইয়ং গত ৩ আগস্ট দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাও চালিয়েছে।

কিন্তু এই সবকিছুই যেন ম্লান হয়ে গেল যখন রিওতে ঐ দুই অ্যাথলেট একে অপরের পাশে ক্যামেরার সামনে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে গেলেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার ১৭ বছর বয়সী লি এবারই প্রথম অলিম্পিকের আসরে যোগ দিয়েছেন। তবে ২৭ বছর বয়সী হং এদিক থেকে বেশ এগিয়ে। বেইজিং অলিম্পিকে ২০০৮ সালে উত্তর কোরিয়ার হয়ে প্রথম সোনা জেতেন হং।