মেইন ম্যেনু

অলৌকিকভাবে বড় হচ্ছে শিবলিঙ্গ!

হিন্দুধর্মের অনুসারীদের কাছে শিবলিঙ্গ অত্যন্ত পূজনীয় একটি ধর্মীয় প্রতীক। সন্তান-সন্ততি ও সমৃদ্ধির আশায় এই লিঙ্গের পূজা করা হয়। কিন্তু ভারতের ছত্তিশগড় এলাকায় ভূতেশ্বর নাথের শিবলিঙ্গ আক্ষরিক অর্থেই বড় হচ্ছে! এমন নিষ্প্রাণ শিলাখণ্ডের বছর বছর আড়েবহরে বৃদ্ধির কোনো ব্যাখ্যা খুঁজে পাচ্ছে না কেউ।

জানা যাচ্ছে, ভূতেশ্বর শিবলিঙ্গ আড়েবহরে বাড়ছে, বাড়ছে উচ্চতাতেও। এখন যে লিঙ্গের উচ্চতা ১৮ ফুট, একসময় তা ছিল খুবই ক্ষুদ্র। ছত্তিশগড় রাজস্ব দপ্তরের রেকর্ড বলছে, প্রতি বছর দৈর্ঘ্যেই বাড়ছে ৬ থেকে ৮ ইঞ্চি। সামঞ্জস্য রেখে বাড়ছে প্রস্থেও।

ছত্তিশগড়ের গড়িয়াবন্দ জেলার মারোদা গ্রাম। সেখানেই এক জঙ্গলের মধ্যে রয়েছে এই ভূতেশ্বরের লিঙ্গ। প্রতিবছর এখানে তীর্থযাত্রীদের ভিড় লেগে থাকে। ভূতেশ্বরকে দর্শন করে, তারা নিয়ে যান গৌরীশঙ্কর রুদ্রাক্ষ। মনে করা হয়, গৌরীশঙ্কর রুদ্রাক্ষেই রয়েছে শিব-পার্বতীর আশীর্বাদ।

ছত্তিশগড়ের এই গ্রামে গেলে, ভূতেশ্বরকে নিয়ে অনেক গল্পও শোনা যায়। গ্রামবাসী বলেন, এখানকার যিনি জমিদার ছিলেন, তিনিই প্রথম এই লিঙ্গের দর্শন পান। প্রজারা সেই জমিদারকে বলেন, তারা সিংহের গর্জন শুনছেন। সেই সিংহের খোঁজে জঙ্গলে ঢুকে জমিদার দেখেন, উঁচু ঢিপির মতো ফলক। চেষ্টা করেও সেই শিলাখণ্ড সরাতে পারেননি। পরে, খেয়াল করেন, ক্রমশ মাটি ফুঁড়ে বেরিয়ে আসছে সেই শিলা। সেই থেকেই শিবজ্ঞানে পূজা পায় ওই শিলা।

ছত্তিশগড়ের এই ভূতেশ্বরই বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রাকৃতিক শিবলিঙ্গ।