মেইন ম্যেনু

অ্যালোভেরার যে ৫টি প্যাক ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করবে

নিখুঁত, উজ্জ্বল ত্বক প্রতিটি মেয়ের স্বপ্ন। এই স্বপ্ন পূরণের জন্য ব্যবহার করে থাকে কত শত ক্রিম, কত শত ফেসপ্যাক। অথচ হাতের কাছে থাকা একটি উপাদান দিয়ে পাওয়া সম্ভব নিখুঁত উজ্জ্বল ত্বক। আর সেই উপাদানটি হল অ্যালোভেরা জেল। প্রাচীনকাল থেকে রূপচর্চায় ব্যবহার করা হয়ে থাকে অ্যালোভেরা জেল। অ্যালোভেরা ফেসপ্যাক ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বকের দাগ দূর করতে সাহায্য করে থাকে। আসুন এমন কিছু অ্যালোভেরা ফেসপ্যাকের কথা জেনে নেওয়া যাক।

১। অ্যালোভেরা এবং পেঁপে
পেঁপেতে ত্বকের রং হালকা করার উপাদান রয়েছে। এছাড়া এটি ত্বক এক্সফলিয়েট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কয়েক টুকরো অ্যালভেরা জেল এবং পেঁপে ম্যাস করে পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

২। অ্যালোভেরা এবং লেবুর রস
২টি অ্যালোভেরা পাতার জেল এবং অর্ধেকটা লেবুর রস ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে পেস্ট করে নিন। এটি ত্বকে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। অ্যালোভেরা, শসা এবং গোলাপ জল
২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল, কয়েক টুকরো শসা এবং কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল। শসা এবং অ্যালোভেরা জেল পেস্ট করে নিন। এরসাথে গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন। ২৫-৩০ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের ইনফেকশন দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকে।

৪। অ্যালোভেরা এবং টমেটো
২ টেবিল চামচ টমেটোর রস এবং ১ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ২-৩ মিনিট ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে ফেলুন।

৫। ডিম এবং অ্যালোভেরা জেল
১টি ডিম ভাল করে ফেটে নিন। এরপর এতে ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। এবার এটি মুখ এবং ঘাড়ে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। একটি তুলোর বল পানিতে ভিজিয়ে ত্বক থেকে প্যাকটি তুলে ফেলুন। তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের নমীয়তা বৃদ্ধি করে বলিরেখা দূর করে থাকে।
অ্যালোভেরা প্যাকগুলো নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে ত্বকের দাগ দূর করে থাকে।