মেইন ম্যেনু

আংশিক দিয়েই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজন ছাত্রদলের

১৫৩ সদস্যের আংশিক কমিটি দিয়ে বছর পার করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে যাচ্ছে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল।বছরজুড়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটির সেই গুঞ্জন আজও আছে। বলা হচ্ছে, শুক্রবার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনই ঘোষণা আসতে পারে পূর্ণাঙ্গ কমিটির।এক বছর আগে যখন আংশিক কমিট হয় তখনও বলা হয়েছিল শিগগির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে হাজির হবে এক সময়ের অত্যন্ত প্রভাবশালী এই ছাত্রসংগঠনিটি।

গুঞ্জন আছে, শুক্রবার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে ঢাকা মহানগর কমিটিকে দুইভাগ থেকে চারভাগে উন্নীত করার ঘোষণাও আসতে পারে। তবে বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এছাড়া্ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও হল কমিটি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা কলেজ, তিতুমীর কলেজ কমিটিরও ঘোষণা আসতে পারে বলে গুঞ্জন আছে।

যে কারণে কেন্দ্রীয়, মহানগর ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের কমিটিতে আসতে চান ছাত্রদলের এমন পদপ্রত্যাশীরা তাকিয়ে আছেন প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর দিনের দিকে।

তবে ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে কাজ করেছেন বিএনপির এমন এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে  বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কমিটি পূর্ণাঙ্গ এবং মহানগরের চার কমিটি একসঙ্গে হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে হবে কিনা শতভাগ নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। হতেও পারে।’

ছাত্রদলের একজন সহ-সভাপতি বলেন, ‘প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর দিনে পূর্ণাঙ্গ কমিটি হওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে হতে পারে। সেক্ষেত্রে মহানগর কমিটিও ঘোষণা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর রাজীব আহসান ও আকরামুল হাসানের নেতৃত্বে ১৫৩ সদস্যবিশিষ্ট আংশিক কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু ওই কমিটিতে ছাত্রদলের অনেক পদবঞ্চিত নেতাকর্মী এবং প্রত্যাশিত পদ দেয়া হয়নি বলে একটি অংশ বিদ্রোহ করেন। তারা সেসময়ে এ কমিটির বিরুদ্ধে ব্যাপক আন্দোলনও করেন। তবে দলের হাইকমান্ডের হস্তক্ষেপে ওই বিদ্রোহ সাময়িক প্রশমিত হয়। এরপর থেকেই বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রীয় কমিটির পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়া হবে বলে গুঞ্জন ওঠে।কিন্তু হয়নি। বর্তমানে সংগঠনের সভাপতি কারাগারে আছেন।

এদিকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- আজ রাত ১২টা ১ মিনিটে কেক কাটা, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।