মেইন ম্যেনু

“আইএসকে অর্থ দেয় ৪০টি দেশ”

আইএস জঙ্গিগোষ্ঠীর অর্থায়ন করে ৪০টি দেশ। জি-২০ জোটের সদস্য দেশগুলোর ভেতরে একাধিক রাষ্ট্রও এতে জড়িত বলে মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

সোমবার তুরস্কের আন্তালিয়ায় অনুষ্ঠিত জি-২০ সম্মেলনের শেষে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

রুশ ও রাশিয়া থেকে আগত সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজিত বিশেষ ওই সংবাদ সম্মেলনে পুতিন তার দেশের গোয়েন্দা তথ্যের কিছু দিক তুলে ধরেন। জঙ্গি অর্থায়নের এই তথ্য মূল সম্মেলনেও তিনি তুলে ধরেছেন বলে জানান সাংবাদিকদের।

এ ছাড়া আইএসের কুক্ষিগত অবৈধ পেট্রোল বাণিজ্যের ব্যপারে কথা বলেন পুতিন। উল্লেখিত তথ্য প্রমাণ করতে জোটভুক্ত দেশগুলোর প্রধানদের সামনে স্যাটেলাইট ও উড়োযান থেকে তোলা একাধিক পেট্রোল বাণিজ্যের ছবি দেখিয়েছিছেন তিনি।

সম্মেলনে পুতিন আরো বলেন ‘আইএস দ্বারা কোন দেশ বেশি আর কোন দেশ কম আক্রান্ত তা দেখার সময় এখন নয়, বরং সন্ত্রাস মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক একটি সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন।’

তবে এসব অভিযানে পরিষ্কারভাবে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, সৌদি আরব, তুরস্ক ও ইরানের সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন পুতিন।

বিশ্বের উন্নত ১৯টি দেশ ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরদের সমন্বয়ে গঠিত জোট জি-২০।

অন্যতম ২০টি অর্থনীতির ধারক রাষ্ট্রসমূহের মাঝ থেকে আইএস অর্থায়নের মতো স্পর্শকাতর তথ্যে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে বিশ্ব মিডিয়ায়।

পুতিনের মতে আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, মেক্সিকো, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনেক রাষ্ট্রই এই অর্থ যোগানে জড়িত থাকতে পারে।