মেইন ম্যেনু

আইএসকে হটিয়ে জারাব্লাস দখলে নিয়েছে তুরস্ক

আইএস জঙ্গিদের হটিয়ে তুরস্ক সীমান্তবর্তী গুরুত্বপূর্ণ জারাব্লাস শহর দখলে নিয়েছে তুরস্ক বাহিনী। আর তাদেরকে এ কাজে সহায়তা করেছে সিরিয়ার সরকারবিরোধী বিদ্রোহী গোষ্ঠী ফ্রি সিরিয়ান আর্মি।

বুধবার ভোর ৪টায় জারাব্লাসে ‘ইউফ্রেটিস শিল্ড’ নামের সামরিক অভিযান শুরুর পর দিনভর লড়াইয়ে শহরটি দখলে নেয় তুরস্ক। বিমান-ট্যাংক নিয়ে একযোগে হামলা চালায় দেশটি। তাদের পাশাপাশি আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই করে ফ্রি সিরিয়ান আর্মি। যুক্তরাষ্ট্রও বিমান হামলা চালায়। সিরিয়ার বিদ্রোহীরা জারাব্লাসের আশপাশে কয়েকটি গ্রামের দখল নিয়েছে।

ফ্রি সিরিয়ান আর্মির কমান্ডার আহমেদ ওটমান বলেন, ‘জারাব্লাস এখন পুরোপুরি মুক্ত।’

বিদ্রোহীদের আরেকজন মুখপাত্র জানান, আইএস যোদ্ধারা পালিয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমে আল-বাবের দিকে গেছে। তিনি বলেন, ‘বুধবার সকালে আইএসের ওপর আক্রমণ শুরু হয়। অভিযান শুরুর কয়েক ঘণ্টা পরই জারাব্লাসের আশপাশের পার্বত্যাঞ্চলের দখল নিয়ে নেওয়া হয়। পরে টিকতে না পেরে আইএস জঙ্গিরা তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা আল-বাবের দিকে পালিয়ে যায়। আমরা জারাব্লাস শহরের কাছাকাছি কয়েকটি গ্রামের দখল নিতে সমর্থ হয়েছি।’

জারাব্লাস তুরস্কের সীমান্তের কাছাকাছি অবস্থিত একটি গুরুত্বপূর্ণ শহর। গত দুই বছর ধরে এটি আইএস যোদ্ধাদের দখলে ছিল। এটির দখল হারিয়ে এখন সিরিয়ার উত্তরপূর্বে আল-বাব ঘাঁটিই কেবল আইএসের দখলে থাকল।

বুধবার তুরস্ক বাহিনী জারাব্লাস দখলের পর দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আইএসের পাশাপাশি কুর্দি জঙ্গিদের লক্ষ্য করেও হামলা চালানো হচ্ছে।