মেইন ম্যেনু

আইএসের গুলিতে ২ বাংলাদেশি নিহত

লিবিয়ায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের গুলিতে আরিফুল করিম সিদ্দিক (২৮) ও মোসলেহ উদ্দিন (৩০) নামে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এ সময় ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছেন তাদের দুই বন্ধু।

মঙ্গলবার দুপুরে লিবিয়ার নিয়ার আজদাবিয়া শহরে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার বিকেলে লিবিয়া থেকে আরিফের এক বন্ধু ফোন করে নিহতের বিষয়টি তার বাবাকে জানান।

আইএসনিহত মোসলেহ উদ্দিনের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার দাঁতমণ্ডল গ্রামে এবং আরিফুর রহমানের বাড়ি বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার লোহালিয়া গ্রামে।

আরিফুলের মৃত্যুর খবরে বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার লোহালিয়া গ্রামে চলছে শোকের মাতম। একমাত্র উপার্জনক্ষম ছেলের মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তার মা-বাবা। বৃদ্ধ মা-বাবা ছেলে হারানোর শোকে সজ্ঞাহীন হয়ে পড়ছেন। একইভাবে বড় ভাই এবং ছোট তিন বোনও ভাই হারানোর বেদনা মেনে নিতে না পেরে অঝরে কাঁদছেন।

আরিফুলের মা রাবেয়া খাতুন জানান, ঈদের ছুটিতে মঙ্গলবার দুপুরে ছেলে আরিফুলসহসহ অপর তিন বন্ধু লিবিয়ার আরেক শহর নিয়ার আজদাবিয়ায় ঘুরতে যায়। এ সময় তারা চার বন্ধুই আইএস জঙ্গিদের কবলে পড়ে। এক পর্যায়ে সেখান থেকে পালানোর চেষ্টা করলে গুলিতে আরিফুল মারা যায়। এ সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার দাঁতমণ্ডল গ্রামের মোসলেহ উদ্দিনও গুলিতে মারা যায়। তবে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায় তাদের দুই বন্ধু।

আরিফুলের বাবা আবুল কালাম মাস্টার জানান, ছেলে আরিফুল চার বছর আগে শ্রমিক ভিসায় লিবিয়ায় যায়। তার পাঠানো অর্থেই তাদের পুরো পরিবার চলতো। বৃহস্পতিবার বিকেলে হঠাৎ করে লিবিয়া থেকে আরিফের এক বন্ধু ফোন করে জানায়, আরিফুল আইএসের গুলিতে নিহত হয়েছে। এমনকি তার লাশও ঢাকায় চলে গেছে।

এদিকে, আরিফুলের লাশ গ্রহণ করতে স্বজনরা রাজধানীর উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। রাতেই তার লাশ গ্রামের বাড়ি বাবুগঞ্জের লোহালিয়া গ্রামে নিয়ে আসবেন তারা। শুক্রবার তার দাফন করার কথা রয়েছে।