মেইন ম্যেনু

আইএস জঙ্গিরা ‘জাহান্নামের কুত্তা’

কয়েকদিন আগেই হায়দরাবাদ থেকে আইএস জঙ্গি সন্দেহে গ্রেপ্তার হওয়াদের আইনি সাহা‌য্যের প্রস্তাব দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন অল ইন্ডিয়া মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এআইএমআইএম) নেতা আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। সেই তিনিই আইএস জঙ্গিদের জাহান্নামের কুকুরের সঙ্গে তুলনা করলেন।

হায়দরাবাদে এক সভায় মুসলিম ‌তরুণদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসাদউদ্দিন বলেন, ‘ইসলামের জন্য বাঁচো, মরো না। আইএস ইসলাম বিরোধী শক্তির দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।’

আসাদ বলেন, ‘মদিনায় নবির মসজিদের কাছে বিস্ফোরণই প্রমাণ করে আইএস ইসলামের শত্রু। তারা ইসলামকে দানবে পরিণত করছে। এই জঙ্গি সংগঠনের লোকজন একএকটা জাহান্নামের কুত্তা। আবু বকর আল বাগদাদিকে (আইএস প্রধান) হাতে পেলে টুকরো টুকরো করে দেয়া হবে।’

ঈদের পর এআইএমআইএমের সদর দপ্তরে আয়োজিত জনসভায় আইএস’র মতাদর্শকে তীব্রভাবে আক্রমণ করলেন। আইএসকে তাত্ত্বিকভাবে মোকাবিলার লক্ষ্যেই এ সভার আয়োজন করা হয়। ওয়েইসি ছাড়াও ওই সভায় বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের ধর্মগুরুরাও উপস্থিত ছিলেন। তারা প্রত্যেকেই আইএসকে ইসলামের শত্রু বলে হুঁশিয়ারি দেন। আইএসকে সমূলে উত্খাত করার ডাকও তারা দিয়েছেন। এদিন মদিনাসহ রমজানে বিশ্বজুড়ে একাধিক জঙ্গিহামলার নিন্দা করে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়।

সোমবারই মুসলিমদের কাছে দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ তীর্থস্থান মদিনায় বিস্ফোরণ ঘটানোর বিষয়ে আসাদ বলেন, ‘‌যদি সত্যিই জিহাদ করতে চাও তবে হাতে অস্ত্র তুলে নিয়ও না। গরিবদের মুখে অন্ন তুলে দাও, উন্নয়নের জন্য কাজ করো, দুঃস্থ পরিবারের মেয়ের বিয়ের ব্যবস্থা করো। এটাই আসল জিহাদ।’

তিনি তরুণ সম্প্রদায়ের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘এই দেশ আমাদের, এই দেশের সঙ্গেই থাকো।’