মেইন ম্যেনু

আইটেম গানে নেচেই নায়িকা নায়লা নাঈম

পোস্টারেই বিতর্ক ছড়িয়েছে তন্ময় তানসেন পরিচালিত ‘রানআউট’। পোস্টারে লেখা রয়েছে ‘১৮+’। অথচ বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে এখনো গ্রেডিং সিস্টেম চালু হয়নি। সিনেমাটির একটি আইটেম গানে নেচেছেন আলোচিত মডেল নায়লা নাঈম। তার ছবিটিই পোস্টারে বড় করে দেখা যাচ্ছে।

পোস্টারের এক কোণায় ছোট্ট করে দেখা যাচ্ছে তারিক আনাম খান, সজলের মতো অভিনেতাদের। আর বড় করে শোভা পাচ্ছে নায়লা নাঈম। শুক্রবার(১৬ অক্টোবর) সারাদেশে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

পোস্টার দেখে অনেকেই ভাবছেন ‘রান আউট’র নায়িকা বুঝি নায়লা নাঈম। আবার কেউ কেউ মন্তব্য করছেন একটি মাত্র আইটেম গানে নেচেই নায়িকা বনে গেলেন! এমন মন্তব্য প্রসঙ্গে সিনেমাটির নির্মাতা তন্ময় সরলভাবেই স্বীকার করে নিলেন বাণিজ্যিক কারণেই নায়লাকে পোস্টারে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

naila1

তিনি মঙ্গলবার দুপুরে বলেন, ‘বাণিজ্যিক কারণেরই নায়লা নাঈমকে সিনেমার প্রচারণায় প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। নায়লার প্রতি দর্শকের আগ্রহ রয়েছে। আমরা বাণিজ্যিক কারণেই তাকে পোস্টারে ব্যবহার করেছি। আমরা চাই নায়লাকে দেখে দর্শক সিনেমা হলে যাক।’

সিনেমাকে ব্যবসার সঙ্গে তুলনা করে তন্ময় আরও বলেন, ‘আমরা তো দাতব্য সংস্থা খুলে বসিনি। ব্যবসা করার জন্যই সিনেমা। দর্শক যদি হলে না যায়, তবে সিনেমা কাদের জন্য? আমরা পোস্টারে নায়লা নাঈমকে উপস্থাপন করে এক ধরনের আকর্ষণ তৈরির চেষ্টা করেছি। কারণ নায়লার প্রতি সবার আগ্রহ রয়েছে।’

naila3

বিষয়টি নিয়ে তরুণ চলচ্চিত্রকর্মী আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, ‘সিনেমা যতটা না বাণিজ্য তারচেয়ে বেশি শিল্প মাধ্যম। সিনেমাকে যারা শুধুই বাণিজ্যিক মাধ্যম ভাবেন তারা কারওয়ান বাজারে গিয়ে আলু-পটলের ব্যবসা করলেই তো পারেন। সিনেমা শিল্পকে ধ্বংস করবেন না। আইটেম গানে নেচে যদি কেউ নায়িকার মর্যাদা পেয়ে যান তবে এটা সিনেমা শিল্পের জন্য বাজে দিকেরই উন্মোচন করবে। এক সময় আর রুচিশীল সিনেমা নির্মাণ হবে না।’

naila2

নির্মাতা তন্ময় তানসেন বলেন, “সারাদেশের শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে ‘রানআউট’ মুক্তি পাবে। ঠিক কতটি হলে মুক্তি পাবে, সেটি জানা যাবে আগামীকাল (বুধবার)। এখনো আরও কিছু হলের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে।”

সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন সজল, ওমর সানি, মৌসুমী নাগ, রোমানা স্বর্ণা, তানভীর হাসান প্রবাল, আহমেদ শরীফ ও তারিক আনাম খান।