মেইন ম্যেনু

আইপিএলের নিলামে মিরাজ-তাসকিনসহ ৬ বাংলাদেশি

ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ আইপিএলের নিয়মিত মুখ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। গত মৌসুমে প্রথমবারের মত খেলতে যেয়ে বাজিমাত করা মোস্তাফিজুর রহমান এবারও থাকছেন। দল পেলে তাদের সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন আরো ছয় বাংলাদেশি ক্রিকেটার। নতুন মৌসুমের নিলামের জন্য চূড়ান্ত তালিকায় স্থান পেয়েছেন মিরাজ-তাসকিনসহ ছয়জন। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গালুরুতে হবে ২০১৭ আইপিএলের নিলাম।

সব দেশের ক্রিকেটার মিলিয়ে আসন্ন মৌসুমের নিলামের জন্য চূড়ান্ত তালিকায় স্থান পেয়েছেন সাড়ে তিনশ জন। তাদের মধ্যে থাকা ছয় বাংলাদেশি হলেন- উদ্বোধনী তামিম ইকবাল ও এনামুল হক বিজয়, অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ, ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান ও পেসার তাসকিন আহমেদ। তাদের প্রত্যেকেরই নিলামের ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে ৩০ লাখ রুপি করে।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের নিয়মিত মুখ সাকিবকে আগে থেকেই ধরে রেখেছে দলটি। গত মৌসুমে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে শিরোপা জেতাতে ভূমিকা রাখা মোস্তাফিজকেও ধরে রেখে পুরনো দল।

১৯ বছর বয়সী অফস্পিনার মিরাজ দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২ টেস্টে ১৯ উইকেট নিয়ে আলোচনায় আসেন। ভারতের বিপক্ষে হায়দরাবাদ টেস্টে ২ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি একটি ফিফটি করেছেন। গত বিপিএলে রাজশাহী কিংসের হয়ে ১৫ ম্যাচে ১২ উইকেট নিয়েছেন। তবে দেশের জার্সিতে এখনো টি-টুয়েন্টিতে অভিষেক হয়নি তার।

পুনে ওয়ারিয়র্সের হয়ে খেলতে তামিম আগে আইপিএলে গিয়েছিলেন। তাতে অভিজ্ঞতা ভালো নয় বাংলাদেশি ওপেনারের। সুযোগই পাননি নিজেকে মেলে ধরার। ২৭ বর্ষী এই তারকা দারুণ ফর্মে আছেন। জাতীয় দলের হয়ে রান করছেন। বিপিএলের গত আসরে চিটাগং ভাইকিংসকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি এই বাঁহাতি ১৩ ম্যাচে ৪৭৬ রান করে সর্বোচ্চ সংগ্রাহক হয়েছিলেন।

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মাটি হওয়া গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে টানা দুই সেঞ্চুরি করে তারকা খ্যাতি পেয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। তারপর থেকেই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আলোচনায় ৩১ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার। সাব্বির সেখানে আবির্ভাবের পর থেকেই মারকুটে ব্যাটসম্যানের তকমা পেয়ে এসেছেন। ২৫ বর্ষী এই ডানহাতির গত বিপিএলে ঝড়ো সেঞ্চুরি করেছেন। জাতীয় দলের হয়েও রানেই আছেন।

তাসকিনের ওয়ানডে অভিষেকটাই হয়েছিল ভারতের বিপক্ষে পাঁচ উইকেট নেওয়ার মধ্য দিয়ে। শের-ই-বাংলায় ৮ ওভার বল করে ২৮ রানে ৫ উইকেট নেওয়ার পর থেকেই আলোচনায় তিনি। মাঝে ভারতের মাটিতে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে যেয়ে প্রশ্নবিদ্ধ বোলিংয়ের কারণে নিষিদ্ধ হয়েছেন। পরে অ্যাকশন শুধরে ফিরেছেন। দারুণ বল করছেন। ২১ বর্ষী এই পেসারের দিকে আগ্রহ জন্মাতে পারে যেকোনো আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজিরই।

সেদিক থেকে এনামুল হকের নিলামে জায়গা পাওয়াটা একটু অবাক করার মতই। তিনি তো জাতীয় দলের জার্সিতেই সুযোগ পাচ্ছেন না। গত বিপিএলেও ভালো কাটেনি তার। ১৩ ম্যাচে ২৫০ রান করেছিলেন। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে রানেই আছেন এই বাঁহাতি।