মেইন ম্যেনু

আইসিসির ‘স্বাধীন’ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন মনোহর

নারায়নস্বামী শ্রীনিবাসনের ছায়া থেকে অবশেষে বেরিয়ে আসতে পারলো ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসি। শুধুমাত্র ভারত, অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের মধ্যে আইসিসি চেয়ারম্যান নির্বাচিত করার জন্য যে প্রথা ‘তিন মোড়ল’ নামে তৈরী করেছিলেন শ্রীনি, সেটা কিছুদিন আগেই বাতিল করেছিল আইসিসি। বলা হয়েছিল, আইসিসি চেয়ারম্যানের পদটা হবে স্বাধীন। এখানে কোন বোর্ডের দায়িত্ব পালন করা কেউ থাকতে পারবে না। শুধু তাই নয়, এখানে স্বাধীনভাবে নির্বাচন ব্যবস্থাও প্রবর্তণ করা হয়েছিল।

আইসিসির সংবিধান সংস্কার করে যে নতুন পদ্ধতি তৈরী করা হয়েছিল, সে জন্যই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইর প্রেসিডেন্ট পদ থেকে হঠাৎই সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন শশাঙ্ক মনোর। যিনি একই সঙ্গে আইসিসি চেয়ারম্যানের দায়িত্বও পালন করছিলেন। নিয়ম মানার লক্ষ্যেই জগমোহন ডালমিয়ার মৃত্যুর পর সর্বসম্মতিক্রমে নির্বাচিত হয়েও দ্বিতীয় মেয়াদে মাত্র আট মাস বিসিসিআইর প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করলেন মনোহর।

অবশেষে, আইসিসিতে এসে স্বাধীনভাবে সর্বসম্মতিক্রমে পূনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন শশাঙ্ক মনোহর। যে কারণে বলা হচ্ছে, এটা হলো আইসিসির প্রথম ‘স্বাধীন’ চেয়ারম্যান। তবে বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের পদ ছাড়ার পর মনোহর নিজেই বলেছিলেন, `আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য এই পদ ছাড়েননি। ছেড়েছেন শুধু, নিয়মঅনুযায়ী দুটি পোস্ট একসঙ্গে রাখবেন না বলেই।`

আইসিসি চেয়ারম্যান পদে নতুন পদ্ধতিতে নির্বাচনের নিয়ম হচ্ছে, আইসিসির প্রতিজন ডিরেক্টর একজন করে প্রার্থী নমিনি দিতে পারবেন। তিনি হতে পারেন সাবেক কিংবা বর্তমান কোন ডিরেক্টর। নমিনি হলেই কিন্তু আইসিসি চেয়ারম্যান পদের জন্য নির্বাচনের যোগ্য হয়ে যাবেন না। প্রতি নমিনি প্রার্থী অন্তত দু`জন আইসিসির পূর্ণ সদস্য দেশের ডিরেক্টরের সমর্থণ পেলে তবেই চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার উপযোগি হবেন। এই প্রকিয়াটা চলার কথা ২৩ মে পর্যন্ত। অথ্যাৎ সব প্রক্রিয়া শেষে ২৩ মে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা আইসিসি চেয়ারম্যান পদের নির্বাচন।`

তবে ২৩ মে পর্যন্ত যেতে হয়নি। শশাঙ্ক মনোহরকেই সবাই নমিনি হিসেবে নির্বাচন করেছেন এবং তিনিই হলেন সবার চেয়ারম্যান প্রার্থী। আইসিসির বোর্ড সর্বসম্মতিক্রমে তাই তাকেই পরবর্তী দুই বছরের জন্য আইসিসি চেয়ারম্যান নির্বাচিত করলো। আইসিসির অডিট কমিটির চেয়ারম্যান আদনান জাইদি হচ্ছেন নির্বাচন প্রক্রিয়ার প্রধান। তিনিই ঘোষণা করলেন, ২৩ মে`র আগেই নির্বাচন প্রকিয়া সম্পন্ন এবং শশাঙ্ক মনোহরই হচ্ছেন চেয়ারম্যান পদে একমাত্র প্রার্থী। সুতরাং, সবার সম্মতিক্রমে তিনিই আইসিসির পরবর্তী চেয়ারম্যান এবং ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তার কার্যকরিতা শুরু হয়ে যাবে।