মেইন ম্যেনু

আচরণবিধি লঙ্ঘন: প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের অভিযোগ

পৌরসভা নির্বাচনে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী লে. কর্নেল (অব.) নজরুল ইসলাম হিরুর বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ এনেছে নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর এ সংক্রান্ত্র একটি অভিযোগ করেন নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কৌশিক কায়কোবাদ কেনি। অভিযোগ সম্বলিত একটি চিঠি দেন তিনি।

ছাত্রলীগের অভিযোগে বলা হয়েছে, নরসিংদী পৌরসভায় গত ১৫ ডিসেম্বর বিকাল ৩ টায় থেকে রাত পর্যন্ত পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী সাংগঠিনিক সভার নামে নির্বাচনী প্রচারণা, দিকনির্দেশনা ও হুমকিমূলক বিভিন্ন বক্তৃতা প্রদান করেন। তার বক্ততায় তিনি বলেন, আগামী ২০ ডিসেম্বরের পর নংরসিংদী পৌরসভার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এসএম কাইয়ূম এর কোনো নেতা কর্মীকে মাঠে খুঁজে পাওয়া যাবে না। ওই বক্তৃতার কারণে কর্মী, সমর্থক ও সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সিইসিকে অনুরোধ করা হয়।

এদিকে নিজ এলাকায় পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়া নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন শরীয়তপুর-২ আসনে সরকারদলীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলী।

তিনি বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের কাছে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ নিয়ে আসেন।

শওকত আলী জানান, শরীয়তপুরের নড়িয়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর ত্রাস সৃষ্টি করছে। তার কারণে দলীয় সমর্থিত প্রার্থী প্রাচারণা চালাতে পারছে না। ফলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না তা নিয়ে ‍দুশ্চিন্তাগ্রস্ত তিনি।

আচরণবিধি অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেতা, উপমন্ত্রী বা তাদের সমমর্যাদার কোনো সরকারি সুবিধাভোগী ব্যক্তি, সংসদ সদস্য ও সিটি কর্পোরেশন মেয়ররা নির্বাচনী প্রচারণা বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না।

ঘোষিত তফসিল অনুসারে, ৩০ ডিসেম্বর ২৩৪ পৌরসভা ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।