মেইন ম্যেনু

আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথকে উদ্ধৃত করে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তৃতার ইতি টানতে গিয়ে বলেন, ‘রিক্ত আমি নিঃস্ব আমি, দেয়ার কিছু নেই; আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই।

জাতিসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সর্বোচ্চ পুরস্কার “চ্যাম্পিয়নস অব দ্য আর্থ” এবং তথ্য ও প্রযুক্তিতে আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের “আইসিটি সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড” লাভ করায় তাকে দেয়া নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের পরিবেশ ঠিক রাখতে আমরা বিশ্বের দিকে চেয়ে থাকিনি।সীমিত সম্পদ দিয়েই আমরা আমাদের দেশকে সবুজ রাখার চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়েছিলেন এদেশের দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে। সেজন্য তিনি আজীবন কষ্ট করে গেছেন। ১৫ আগস্ট পরিবারের সবাইকে হারানোর পর আমার বাবার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে আমি কাজ করে যাচ্ছি।আমার কিছু চাওয়া পাওয়ার নেই।

শেখ হাসিনা বলেন, আজকের যত অর্জন ও পুরস্কার এদেশের মানুষের জন্যই তা অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। তাই এই পুরস্কার ও অর্জন তা সব আমি এদেশের জনগণকে উৎসর্গ করেছি। দেশকে উন্নতির শিখর পৌঁছাতে জনগণের জন্য সবকিছু উৎসর্গ করবো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, লাখ লাখ প্রাণের বিনিময়ে যে দেশ স্বাধীন হয়েছে সে জাতি কখনো মাথা নিচু করে থাকতে পারে না। আমার একটাই লক্ষ্য এ জাতির মাথা যেন সব সময় উঁচু থাকে।

আওয়ামী লীগের সভানেত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশের ভারসাম্য যেন ঠিক থাকে আমরা সে লক্ষ্য কাজ করছি। শত ঝড় ঝাপ্টা ও দুর্যোগের মধ্যেও আমরা একদিকে পরিবেশ রক্ষা অন্যদিকে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির চেষ্টা করছি।

ঢাকা সিটি উত্তরের মেয়র আনিসুল হকের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সরকারের মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, জাতীয় সংসদ সদস্য এবং দলের প্রবীণ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নসহ জাতীয় জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতার জন্য এর আগেও চলতি বছরের মার্চেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নাগরিক সংবর্ধনা দেয় জাতীয় নাগরিক কমিটি। ওই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনাকে ‘দেশরত্ন’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়।

প্রসঙ্গত, এ বছর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭০তম অধিবেশনে জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচি (ইউনেপ) এবং আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়ন (আইটিইউ) প্রধানমন্ত্রীকে এ দুটি পুরস্কারে ভূষিত করে। পরে শনিবার তিনি দেশে ফেরার পর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তাকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়।