মেইন ম্যেনু

‘আজীবনের জন্য বহিষ্কার বিদ্রোহীদের’

দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে যারা এখনও প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেননি দল থেকে তাদের আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হবে।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারে বেঁধে দেওয়া সময়সীমা পেরোনোর পর শুক্রবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ একথা বলেন।

পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে গত বুধবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের বৈঠক হয়। ওই বৈঠকের পর বিদ্রোহী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য ২৪ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেওয়ার কথা জানানো হয়।

পৌরসভা নির্বাচনে দল সমর্থিত প্রার্থীদের বাইরে প্রায় অর্ধশত আওয়ামী লীগ নেতার মনোনয়ণপত্র যাচাই-বাছাইয়ে টিকে যায় বলে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। আল্টিমেটামের পরে তাদের অর্ধেকের বেশি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন বলে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন।

শুক্রবার মাহবুব উল আলম হানিফ জানান, আজ পর্যন্ত ৬০ শতাংশ বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। যারা আজকের মধ্যে প্রত্যাহার করেননি তাদের দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হবে। ১৩ তারিখের পর তাদের প্রথমে কারণ দর্শানোর নোটিশ ও পরে আজীবন বহিষ্কারের চিঠি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ১৩ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় । আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২৩৪ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ করা হবে।



« (পূর্বের সংবাদ)