মেইন ম্যেনু

আজ বিশ্ব বাবা দিবস

বাবা। ছোট্ট এ শব্দের ব্যাঞ্জনা অপার। সন্তানের সাথে যার বিশুদ্ধ সম্পর্ক। পৃথিবীর আদি থেকে আজ অবধি চিরন্তন ভালবাসার আধার তিনিই। সবার চোখ তখন মাহমুদুউল্লাহ রিয়াদের দিকে। দেশকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে নিতে যার অনবদ্য সেঞ্চুরিতে মোহিত পুরো দেশ। আর তখনি ছেলে রাঈদের আবির্ভাব। বাবা, রিয়াদ ব্যাট উঁচিয়ে স্মরণ করলেন সন্তান রাঈদকে। ছেলের স্বাক্ষর দেয়া ব্যাটেই যে হাসলো বাংলাদেশ।

এমনই হন বাবারা, নিজেদের পূর্ণতা কিংবা অপূর্ণতায় সবসময় থাকে সন্তান।

আজ বিশ্ব বাবা দিবস। সন্তানের মঙ্গল কামনায় সদা জাগরুক যে প্রাণ, তিনিই বাবা। ভাল কিংবা খারাপ, যেকোনো সময়ই মমতা নিয়ে পাশে থাকেন তিনি। যদিও বাবার প্রতি ভালবাসা প্রকাশে একটি দিন কোনভাবেই পর্যাপ্ত নয়।

সময়ের আবর্তনে সন্তানও হয়ে ওঠেন বাবা। ভালবাসার পরম আধার যে সন্তান, ভাললাগার সব অনুভূতিই থাকে তাকে ঘিরে। আদর, স্নেহ আর মমতায় বড় করেন আত্মজকে। জীবন সায়াহ্নে সন্তানের সান্নিধ্যই বড় হয়ে ধরা দেয় বাবাদের কাছে।

এভাবেই বাবার আদরে এগিয়ে যায় প্রজন্মের পর প্রজন্ম। পরম স্পর্শে পূর্ণতা পায় প্রতিটি সন্তানের জীবন। তবুও, বাবার সাথে সন্তানের সম্পর্ক যেন অনেকটা আধো-ভয় মিশ্রিত ভালবাসার সম্পর্ক। পরম নির্ভরতা আর ভরসার এ বন্ধনে কখনো হয়ত বলা হয়ে ওঠে না বাবা, ভালোবাসি তোমায়।

বাবাদের ভালবাসার প্রকাশ হয়তো জোরালো হয়না তেমন। কিন্তু, মন খারাপ কিংবা ভাললাগায় সন্তানের চোখে শেষ আশ্রয় কিন্তু বাবা’ই।

পৃথিবীতে, প্রতি মিনিটে জন্ম নেয় আড়াইশো শিশু; সেই সাথে জন্ম নেয় আড়াইশো বাবা। জন্ম নেয় আড়াইশো স্নেহ আর ভালবাসার উৎস। যে উৎসের ছায়াতলে টিকে থাকে পরম্পরা।






মন্তব্য চালু নেই