মেইন ম্যেনু

আজ শহীদের বিয়ে

বলিউডে এ বছরের সবচেয়ে আলোচিত বিয়ের দিন আজ। পাত্র বলিউড অভিনেতা শহীদ কাপুর আর পাত্রী মীরা রাজপুত। গতকালই দিল্লিতে পৌঁছে গেছেন শাহিদ। পৌঁছে গেছেন তার আত্মীয়-পরিজন, বন্ধু-বান্ধবরাও। সেখানেই আজ চার হাত এক হবে। বলিউড হিরো ৩৪ বছর বয়সী শহীদের সঙ্গে বিয়ে হবে দিল্লির বাসিন্দা ২১ বছর বয়সী মীরার।

রিল লাইফে তো বরবেশে শহীদকে অনেকবারই দেখা গেছে। সেখানে তার লাভস্টোরি লিখে দিতেন ফিল্মের লেখক। কীভাবে প্রেম বা বিয়ে করতে হবে তা বলে দিতেন পরিচালক। তবে এবার রিয়েল লাইফে শহীদের লাভ স্টোরিটিও রিল লাইফের থেকে কোনো অংশে কম নয়। এখানে পরিচালক বা স্ক্রিপ্ট রাইটার হিসেবে তার বাবা পঙ্কজ কাপুরের অবদান অনস্বীকার্য।

কারিনা কাপুরের সঙ্গে শহীদের প্রেমের খবর নিয়ে এক সময় বলিউড মুখরিত ছিল। কিন্তু নানা কারণে সেই সম্পর্ক টেকেনি। এরপরে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া থেকে শুরু করে বলিউডের আরো অনেক নায়িকার সঙ্গে শহীদের সম্পর্ক নিয়ে কানাঘুষো রটেছিল। কিন্তু কোনোটাই ধোপে টেকেনি।

এদিকে মুখে না বললেও ছেলের বিয়ে নিয়ে হয়তো চিন্তিত ছিলেন শহীদের বাবা। একটি সৎসঙ্গ আশ্রমে নিয়মিত যাতায়াত করতেন পঙ্কজ কাপুর। একদিন সেখানে সপরিবারে গিয়েছিলেন তিনি। সেদিনই আলাপ হয়ে যায় রাজপুত পরিবারের সঙ্গে। প্রথম দেখাতেই মীরাকে বউমা হিসেবে পছন্দ হয় তার। বিয়ের প্রস্তাব দিতে রাজি হয়ে যায় রাজপুত পরিবার। আপত্তি করেননি শাহিদও। ভগবানের আশ্রমে বিয়ের সম্বন্ধ হওয়াটাকেই ‘কিসমত কানেকশন’ ধরে নেন তিনি।

শহীদ ও মীরার পরিবারের মধ্যস্থতায় ‘জাব উই মেট’ পর্ব শেষের পরই শুরু হয় শহীদ-মীরার ‘ইশক ভিশক’। মিডিয়ার চোখ এড়িয়ে ‘চুপ চুপ কে’ দেখা করতে থাকেন তারা। ‘কামিনে’ ফিল্মি শহীদ নাকি হয়ে পড়েন ‘মাসুম’ শহীদ। ওদের ‘তেরি মেরি কাহানি’র ‘ফুল অ্যান্ড ফাইনাল’ পরিণতি আজকের ‘বিবাহ’। হয়তো মনে মনে আজ শহীদও বলছেন ‘ওয়াহ লাইফ হো তো অ্যায়সি।’

এ বছরই দিল্লির লেডি শ্রীরাম কলেজ থেকে স্নাতক হয়েছেন মীরা। শহীদের সঙ্গে ১২ বছরের বয়সের ব্যবধান সত্ত্বেও শোনা যায় দুজনের মনের মিল হয়েছে ভালোই।

এদিকে জানা গেছে, বিয়ে উপলক্ষে রোববার থেকেই দিল্লির গুরগাঁওয়ের ট্রাইডেন্ট এবং দ্য ওয়েবর- নামক দুইটি পাঁচতারা হোটেল উঠেছেন শহীদের পরিবার এবং অতিথিরা। অতিথিদের জন্য ট্রাইডেন্টে ৫০টি রুম এবং ওয়েবর-তে শহীদ নিজে একটি প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুট বুক করেছেন। এই প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুটে দুটি শোওয়ার ঘর রয়েছে। এ ছাড়াও রয়েছে একটি খাওয়ার ঘর, পড়াশোনা করার ঘর, প্যান্ট্রি, জিম-যোগ করার জন্যে ঘর, আউটডোর পুল, এবং একটি ইতালিয় শ্বেতপাথরের ফায়ার প্লেস। হোটেলের ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, এই স্যুটের প্রতি রাতের ভাড়া ৬ লাখ টাকা, এর সঙ্গে কর যুক্ত হবে।

সোমবার ছিল শহীদ-মিরার গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান। সেখানে একটি গানের তালে শহীদ-মিরার নাচের দৃশ্য প্রকাশ করেছে টুইটারে প্রকাশ করেছে শহীদের বন্ধু ও খ্যাতনামা ফটোগ্রাফার রোহান শ্রেষ্ঠা। গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে শহীদ-মিরার নাচের ছবিটি টুইটারে প্রকাশ হওয়ার পরপরই তা ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যায়।

শহীদ-মীরার বিয়েটি হবে ছত্রপুর ফার্ম হাউসে। তারপর হোটেলের বলরুমে একটি পার্টি হবে, যেখানে প্রায় ৫০০ লোকের উপস্থিত থাকার কথা আছে। আপাতত অভিনেতার পরিবারের নিকটজন ও বন্ধু-বান্ধব নিয়ে একটি ছোট পার্টি হবে। এরপর আগামী ১২ জুলাই মুম্বাইয়ে একটি গ্র্যান্ড পার্টি হবে, যেখানে বলিউডের সমস্ত তারকাদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।