মেইন ম্যেনু

আটা ও ময়দার যে ৬ টি অজানা ব্যবহার অবাক করবে আপনাকে

রুটি, পরোটা ছাড়া অনেকের সকালের নাস্তাই করা হয় না। এছাড়াও পিঠা আমাদের খুবই প্রিয় একটি খাবার। এবং এই রুটি, পরোটা ও পিঠা ধরণের খাবার তৈরির কাজে মূলত ব্যবহার হয় আটা এবং ময়দা। কিন্তু তাই বলে আটা ও ময়দার কাজ যে শুধুই এই খাওয়ার কাজে সীমাবদ্ধ তা কিন্তু নয়। আটা ও ময়দার রয়েছে আরও অবাক করা কিছু ব্যবহার, যা সম্পর্কে প্রায় অনেকেই জানেন না। তাহলে দেরি কেন? চলুন জেনে নিই আটা ও ময়দার ব্যতিক্রমী অবাক করা কিছু ব্যবহার সম্পর্কে।

১) স্টিলের তৈরি জিনিস ঝকঝকে পরিষ্কার করতে

প্রত্যেকের ঘরেই স্টিলের সিংক ও প্লেট বাটি রয়েছে। নিয়মিত ব্যবহারে এইসকল জিনিসের উজ্জলতা একেবারেই হারিয়ে যায়। এই সমস্যা সমাধান করবে আটা বা ময়দা। স্টিলের জিনিসের উপরে আটা বা ময়দা ছিটিয়ে দিন। এরপর একটি শুকনো কাপড় দিয়েই ঘষে নিন ভালো করে। এরপর ঝেড়ে ফেলে সাধারণ ডিশওয়াসার ব্যবহার করুন। দেখবেন চকচকে হয়ে উঠেছে এবং সেই সাথে তেল চিটচিটে ভাবও গায়েব।

২) পোকা মাকড় দূর করতে

ঘরে পোকামাকড়ের উপদ্রব হয়েই থাকে, বিশেষ করে গরমের দিনে পিঁপড়ার যন্ত্রণা বেড়ে যায়। এই সমস্যা দূর করতে, ঘরের জানালায় পুরু করে ময়দা বা আটার একটি লাইন তৈরি করে দিন। এতে করে পিঁপড়া বা অন্যান্য পোকামাকড় ঘরে ঢুকবে না। এছাড়া যখন পিঁপড়ার কোনো লাইন দেখতে পাবেন তখন তার উপরেও ছিটিয়ে দিতে পারেন আটা বা ময়দা।

৩) দ্রুত ফল পাকাতে

ভুল করে কিনে ফেলেছেন সামান্য কাঁচা কলা বা অন্য ফল? তাহলে তা ময়দা বা আটার ভেতর রেখে দিন। ১ দিনের মধ্যেই বেশ দ্রুত পেকে যাবে ফল।

৪) ঘরোয়া আঠা তৈরি করতে

কোনো কাজে আঠা লাগবে, কিন্তু বাড়িতে কোথাও আঠা খুঁজে পাচ্ছেন না? তাহলে এক কাজ করুন। ২ টেবিল চামচ আটা বা ময়দায় পানি দিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে তা চুলায় জ্বাল করতে থাকুন। কিছুক্ষণ পর যখন দেখবেন মিশ্রণটি ফুটে প্যানের গায়ে লেগে যাচ্ছে বুঝবেন আপনার আঠা তৈরি হয়ে গিয়েছে। সাধারণ কাজগুলো অনায়েসেই এই আঠা দিয়ে করে ফেলতে পারবেন।

৫) কপারের জিনিসপত্র পরিষ্কার করতে

ঘরে তো কপার বা দস্তার জিনিস থাকেই। ময়লা পড়ে একেবারেই নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয় এই জিনিসগুলো। এক কাজ করুন, সমপরিমাণ লবণ, ভিনেগার ও ময়দা বা আটা নিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। এই মিশ্রণ কপারের জিনিসের উপরে লাগান। শুকিয়ে এলে ঘষে তুলে ফেলুন। ব্যস, দেখবেন একেবারে ঝকঝকে হয়ে গিয়েছে।

৬) প্রাকৃতিক স্ক্রাব

ত্বকের জন্য স্ক্রাবিং অনেক বেশি জরুরী। এবং কেমিক্যাল সমৃদ্ধ স্ক্রাবারের চাইতে প্রাকৃতিক স্ক্রাবারের গুণ অনেক বেশি। ১ চা চামচ আটা বা ময়দায় ১ চা চামচ দুধ নিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এটি মুখে লাগিয়ে অল্প শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর আঙুলের আগা দিয়ে ঘষে ঘষে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

সূত্রঃ networx.com