মেইন ম্যেনু

আত্মসম্মানবোধসম্পন্ন মানুষেরা কখনোই করেন না এই কাজগুলো

আত্মসম্মানবোধ সবারই থাকা উচিৎ। কিন্তু সবার মাঝে আমরা সেটা পাই না। আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা নিজেদের সম্মান দেওয়া কি তা বোঝেনই না। নিজেরাই নিজেদেরকে অসম্মানিত করার পথ তৈরি করেন এবং তার মাঝেই জীবনযাপন করেন। এমনকি অন্যদেরকেও অসম্মানের জীবনে টানার চেষ্টা করেন। কারণ তাদের মাঝে আসলে মান-সম্মানবোধটাই নেই।

আত্মসম্মানবোধ আছে এমন মানুষ কখনোই করেন না এই কাজগুলো-

অসম্মানজনক সম্পর্ক টিকিয়ে রাখেন না
সম্পর্কে থাকা চাই শ্রদ্ধা, থাকা চাই পারস্পারিক বোঝাপড়া। যে সম্পর্কে আছে শুধু একজনের কর্তৃত্বপরায়ণতা সে সম্পর্ক কখনোই সমতার অনুভূতি দেয় না। বরং তা মাঝে মাঝে হয়ে ওঠে এবিউসিভ। এধরণের সম্পর্ক অবশ্যই স্বাস্থ্যকর নয়। আত্মসম্মান বোধসম্পন্ন একজন মানুষ এরকম সম্পর্ক শুধু ভালবাসার টানে টিকিয়ে রাখেন না। তিনি সম্পর্কে বোঝাপড়া তৈরি করেন অথবা সম্পর্ক ত্যাগ করেন।

টাকার জন্য সমঝোতা করেন না
টাকা জীবনের প্রয়োজন। কিন্তু টাকাই সব নয়। সম্মানের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তো নয়ই। যার আত্মসম্মানবোধ আছে তিনি টাকার জন্য কোন সমঝোতা করেন না। টাক আদিয়েই মাপা যায় মানুষের জীবনে সম্মানের মূল্য কতটা। কারণ টাকার ওপর পিঠে যেমনি আছে প্রয়োজন, তেমনি আছে লোভ। তাই সহজেই বিচার হয়ে যায়, মানুষটি তার জীবনে কি চায়! সম্মান নাকি অর্থপতিপত্তি।

প্রশংসা পাওয়ার জন্য কোন কাজ করেন না
যিনি যোগ্য তিনি এমনিতেই নজর কাড়েন। আপনি যখন এমন কিছু তৈরি করতে পারেন তখন আপনার সৃষ্টির অনন্যতা মানুষকে মুগ্ধ করবেই। এটা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। এজন্য আপনাকে প্রচারণায় নামতে হবে না। একজন ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন মানুষ কখনোই ওপরের হাত তালি পাওয়ার আশায় নতুনকে সৃষ্টি করেন না। মানুষের কাছ থেকে স্বাভাবিক স্বীকৃতিই তাকে আনন্দ দেয়, আনন্দ দেয় নিজের ক্ষমতা।

আত্মার অশান্তি নিয়েও চাকরি করেন না
আপনার মন কোনভাবেই মেনে নিতে পারছে না আপনার পেশাকে। তবু শুধু সামাজিক মর্যাদা পাবার আশায় আপনি চাকরি করে যাচ্ছেন। এই কাজটি একজন আত্মসম্মানবোধ সম্পন্ন ব্যক্তি কখনোই করবেন না। তিনি সেটাই করবেন যেখানে তিনি শান্তি পাবেন। নিজেকে কষ্টে রেখে সমাজের কাছ থেকে স্বীকৃতি তিনি চাইবেন না।

যে নিজেকে সম্মান দিতে জানে সেই অন্যকে সম্মান করতে পারে। আবার একই ভাবে অন্যকে শ্রদ্ধা করা আপনাকে নিজেকেও শ্রদ্ধা করতে শেখায়। নিজেকে ভালবাসুন। নিজের মূল্য বুঝুন। বাকি পৃথিবীও শীঘ্রই আপনার মূল্য বুঝবে।