মেইন ম্যেনু

আত্মহত্যা’র গুঞ্জনে অভিনেত্রী প্রভা

মিডিয়ায় গুঞ্জনের সুরে গান ধরেছে যে পাখি তার নাম অভিনেত্রী প্রভা। এ গানের সুর মাঝে মাঝেই বদলায়। কখনও প্রভার বিবাহিত জীবন নিয়ে আবার কখনও প্রভার প্রেম নিয়ে। আর এখন আবার গুঞ্জন উঠেছে প্রভা নাকি আত্মহত্যা করছেন। আজকে প্রভা বিষয়ক গুঞ্জন পরিস্কার করবার জন্যই প্রিয় পাঠকের জন্য এই আয়োজন।

সাদিয়া জাহান প্রভা। মিডিয়াতে মেয়েটিকে নিয়ে এই পর্যন্ত যত ঘটানার রটনা হলো তার সবকিছুই তার সরলতার জন্যই। হ্যাঁ প্রভা একজন সরল মেয়ে। সব বির্তকের অবসান ঘটিয়ে যখন তিনি আবারও মিডিয়ায় নিয়মিত হলেন শুধুমাত্র অভিনয়কে ভালোবেসে। সেই ভালোবাসার দায়ে আবারও তাকে শত অপমান সহ্য কের টিকে থাকতে হচ্ছে অভিনয়ে। কেন একজন মানুষের কি স্বাধীনতা থাকতে পারেনা? প্রভার কি অপরাধ তিনি অভিনয় ভালোবেসে করেন সেটা নাকি তিনি একজন সরল প্রকৃতির মানুষ তাই।

এবার আসা যাক প্রভা ও অভিনেতা শ্যামলের বিষয়ে, আবারও সেই গুঞ্জন উঠলো তারা নাকি প্রেম করে বেরাচ্ছেন? ঘটানর সত্যতা নেই। একই সমাজে বসবাস করে যদি হাত ধরে ঘুরাফেরা করা হয়। যদি পাশাপাশি বসে সেলফি তুলে ফেসবুকে দেয়া হয় তাহলে ব্যাস হয়ে গেছে প্রেম? কাজের সুবাদে পরিচয় হলে আর একই সঙ্গে চলাফেরা করলে যদি প্রেম হয়ে যায় তাহরে সবাই প্রেম করছেন। এ প্রেমের নাম বন্ধুত্ব। এবার বলেন বন্ধুত্বে কি প্রেম নেই। নাকি পৃথিবীতে শুধু মাত্র প্রভা- শ্যামলের বন্ধুত্ব রয়েছে। যারা বিষয়টি প্রেম বলছেন তারাই কিন্তু প্রেমটা করছেন।

গত ৮ নভেম্বর অভিনেতা শ্যামল মাওলার জন্মদিন ছিল। আর তাই যথারীতি তার সব বন্ধুরা ও শুভাকাঙ্খীরা মিলে একটা পার্টির আয়োজন করেছে। এ পার্টিতে অভিনেত্রী প্রভাও ছিলেন। অথচ সে রাতে গুঞ্জন উঠলো প্রভা নাকি আত্মহত্যা করছেন? খবরটি পেয়ে মাথায় হাত। এ কি বলে প্রভা ওদিকে জন্মদিন পালন করছেন আর এদিকে খবর উঠলো তিনি আত্মহত্যা করেছেন। নিন্দুকে মুখে তালা দেবার জন্যই আজকের এই লেখা। এবার বোঝা গেলতো মিডিয়াতে গসিপ কি বিষয়। তবে নিন্দুকের উদ্দেশ্যে বলে রাখি। যা ভালো তার নিন্দা না করে খারাপের নিন্দা করুন। কারণ নিন্দা বিষয়টি অনেক খারাপ। এভাবে নিন্দা করলে হয়ত একদিন সত্যি সত্যি আত্মহত্যার খবরটি লিখতে হবে। নিন্দুকেরা বেঁচে থাকুন আর যাদের নিয়ে নিন্দা করছেন তাদের বেঁচে থাকতে দিন। জয়হোক প্রেম ও বন্ধুত্বের।