মেইন ম্যেনু

আত্মহত্যা করলেন মডেল সাবিরা হোসাইন

মডেল এবং গান বাংলা টেলিভিশনের মার্কেটিং এক্সিজিউটিভ সাবিরা হোসাইন আত্মহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার ভোর ৫টা নাগাদ মিরপুরের রূপনগরে সাবলেটে বাসা থেকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় সাবিররা মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত্যুর আগে সাবিরার ফেসবুক স্ট্যাটাস ও ভিডিও বার্তা দেখে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে তার আত্মহত্যার বিষয়টি।

এদিকে, সাবিরার তার ফেসবুকে দেয়া সর্বশেষ স্ট্যাটাসে আত্মহত্যার কারণ লিখেছেন। একইসঙ্গে তিনি একটি ভিডিও আপ করেছেন। সেখানে চাকু হাতে বারবার পেটে ও গলায় চাপ দেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি।কিন্তু ব্যর্থ হওয়ায় ৯ মিনিটের ওই ভিডিওর শেষে তিনি বলেন, ‘আমি ব্যর্থ, আপাতত। এবার পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।’

স্ট্যাটাসে নির্ঝর সিনহা রওনক নামের এক আলোকচিত্রীকে উদ্দেশে সাবিরা লেখেন, আমি তোমাকে দোষ দিচ্ছি না। এটা তোমার ছোট ভাইকে বলছি। সে আমাকে যা ইচ্ছে বলেছে। আর বেস্ট পার্ট হলো, প্রত্যয় আমাকে বাসা থেকে বের করে দিয়েছে। আর আমার প্রশ্ন হলো, তোমার কী একটুও খারাপ লাগেনি?

সাবিরা আরো লেখেন, আমাকে যখন তখন ব্যবহার করবা, শারীরিক সম্পর্ক করবা আর এসব সহ্য করে যাব এটা তো কোনো কথা না! আমিও ভালোবাসার টানে চলে আসবো তাও না, বিয়ের কথা বললে তোমার পরিবারের সমস্যা থাকে আর শারীরিক সম্পর্কের বেলায় সব ঠিক! এটা আমি আর সহ্য করতে পারছিনা। এখন আমি আত্মহত্যা করছি শুধু তোমার জন্য। এবং শেষে সাবিরার প্রেমিক আলোকচিত্রীকে(নির্ঝর সিনহা রওনক ) মেনশন করে লেখেন, আমার মৃত্যুর জন্য সে দায়ী। যদি আমি মারা যাই, তাহলে এর দায় তোমার।

এদিকে সাবিরার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে সাবিরার সঙ্গে নির্ঝর সিনহা রওনকের গভীর প্রেম চলছিল। তাদের মতের বনিবনা না হওয়ায় সাবিরা মৃত্যুর পথ বেছে নেয়।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টায় সাবিরার প্রেমিক নির্ঝর সিনহা রওনক সাবিবার বাসায় গিয়ে দরজা ভেঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। তবে এব্যাপারে প্রাথমিকভাবে কোনো মামলা হয়েছে কিনা সেটি জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, সাবিরা হোসাইন বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজের মডেলিং এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন একইসাথে মোহনা টেলিভিশন এবং পরবর্তীতে গান বাংলা টেলিভিশনের মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ হিসেবে কর্মরত ছিলেন।