মেইন ম্যেনু

আত্মহত্যা করেননি, নাটক সাজিয়েছিলেন হিটলার!

নাৎসি নেতা হিটলারের মৃত্যু সম্পর্কে সর্বাধিক প্রচলিত ধারণাটি হলো, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষ পর্যায়ে তিনি জার্মানির রাজধানীর বার্লিনের একটি বাংকারে আত্মহত্যা করেন। তবে এই ধারণাকে ভুল বলে দাবি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএর সাবেক এক কর্মকর্তা। তাঁর দাবি, হিটলার আত্মহত্যা করেননি। নিজের মৃত্যুর নাটক সাজিয়ে তিনি পালিয়ে যান আর্জেন্টিনায়।

দীর্ঘ ২১ বছর সিআইয়ের হয়ে কাজ করা বব বেয়ার দাবি করেছেন, জার্মানির রাজধানী বার্লিনের বাংকারে হিটলারের মৃত্যুর বিষয়টি ধোপে টেকে না। নতুন প্রাপ্ত নথিতে দেখা যায়, নিজের মাথায় গুলি করে হিটলারের আত্মহত্যার বিষয়টি নিয়ে ওই সময়ের তদন্ত কর্মকর্তারাও সন্দিহান ছিলেন।

মেইল অনলাইনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, নিজের মৃত্যুর নাটক সাজানো হিটলারের জন্য ছিল খুবই সহজ কাজ। কিছু নতুন নথির ভিত্তিতে বব বেয়ার দাবি করেন, যৌথ বাহিনীর হাত থেকে বাঁচতে হিটলার আত্মহত্যার একটি নাটক সাজান। জার্মানি থেকে পালিয়ে হিটলার চলে যান স্পেনের ক্যানারি আইল্যান্ডসে। পরে সেখান থেকে তিনি গোপনে পাড়ি জমান আর্জেন্টিনায়।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো এফবিআইয়ের গোপন নথির তথ্য অনুযায়ী, হিটলার হয়তো বিমানযোগে জার্মানি থেকে স্পেনের ক্যানারি আইল্যান্ডসের টেনেরিফ দ্বীপে চলে গিয়েছেন। অপর কিছু নথি অনুযায়ী, একটি সাবমেরিনে হিটলারকে টেনেরিফ দ্বীপ থেকে অর্জেন্টিনায় পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল। নাৎসি সমর্থক আছে আর্জেন্টিনার এমন অঞ্চলে স্থান হয় হিটলারের।

হিস্টরি চ্যানেলে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন ‘হান্টিং হিটলার’-এ দাবি করা হয়, হিটলার আত্মহত্যা করেছেন এমন কোনো প্রত্যক্ষদর্শী পাওয়া যায়নি। প্রতিবেদকদের ধারণা, হিটলার আত্মহত্যার ঘটনা সাজিয়ে বিমানে পালিয়ে যেতে পারেন। যৌথ বাহিনী জার্মানি দখলের প্রাক্কালে অনেক বিমান বার্লিন ছেড়ে যায়। এমনই কোনো বিমানে হিটলারের মালপত্র পার করে দেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া কিছু নথির তথ্য অনুযায়ী, হিটলারের মৃতদেহও পাওয়া যায়নি।