মেইন ম্যেনু

আত্রাইয়ের ভবানীপুর হাটে প্রবেশের রাস্তাটি মরণফাঁদে পরিণত

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) সংবাদদাতা: নওগাঁর আত্রাই উপজেলার ভবানীপুর হাটে প্রবেশের রাস্তাটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। রাস্তার পার্শে পুকুর থাকায় রাস্তাটি ভেঙ্গে যাওয়ায় চরম জন দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার ভবানীপুর একটি ঐতিহ্যবাহী হাট সপ্তাহে শনিবার ও মঙ্গলবার দুদিন বসে। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ও বিকেলে এখানে বাজার বসে। এলাকার হাজার হাজার মানুষ তাদের প্রয়োজনে এই হাটে ও বাজারে আসতে হয়। আত্রাই-নওগাঁ পাকা সড়কের সাথে হাটটি হলেও দক্ষিন দিক থেকে হাটে প্রবেশের রাস্তাটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে যে কোন সময় ঘটতে পারে এখানে বড় ধরনের দূঘর্টনা। এ হাট থেকে প্রতিবছর সরকারের বিপুল পরিমাণ টাকা রাজস্ব আয় হলেও এ রাস্তাটি মেরামতের কর্তৃপক্ষের কোন উদ্যোগ নেই। ফলে দীর্ঘদিন থেকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ওই এলাকার হাজার হাজার জনসাধারণকে।

জাতপাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফা বলেন, হাট বার ছাড়াও প্রায় প্রতি দিনই আমাদের এই বাজারে আসতে হয়। বাজারে প্রবেশের প্রধান রাস্তাটি ভেঙ্গে জরাজীর্ণ হওয়ায় আমাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করা কষ্টকর হয়ে পড়েছে।

রসুলপুর গ্রামের সাগর বলেন, হাটের দক্ষিণাঞ্চলের বেশ কয়েকটি গ্রামের লোকজনকে এ রাস্তা দিয়ে হাটে প্রবেশ করতে হয়। হাটে পণ্য ক্রয় বিক্রয় করলে যথাযথ খাজনা দিলেও আমাদের এ রাস্তার প্রতি নজর দেয়া হয়না।

ভবানীপুর বাজার বণিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডিএস জাহিদ বলেন, রাস্তাটি গত বন্যায় আরও বেশি ভেঙ্গে গেছে। এতে করে রাস্তাটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। বাজার কমিটির পক্ষ থেকে আমরা বারবার রাস্তা মেরামতের জন্য বলেছি।

সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান এসএম মোয়াজ্জেম হোসেন চাঁন্দু বলেন, এ রাস্তাটি টেকসই করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় বিষয়টি একাধিকবার উত্থাপন করেছি। এরপরও কর্তৃপক্ষ এদিকে নজর দিচ্ছেন না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মোখলেছুর রহমান বলেন, ভবানীপুর হাটের ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। রাস্তাটি সংস্কার করা হবে। বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর স্বার্থে এবং সরকারে রাজস্ব আয়ের স্বার্থে দ্রুত রাস্তাটি সংস্কার করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকার সচেতন মহল।