মেইন ম্যেনু

আদালতের নির্দেশনা মেনেই কাজ করবে পুলিশ

বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার ও আসামিকে হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ নিয়ে আদালতের নির্দেশনা মেনে চলতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, ‘সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা অবশ্যেই মেনে চলবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।’ নির্দেশনা মানায় ব্যত্যয় হলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট সদস্যের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

উল্লেখ্য, ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারা (বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার) ও ১৬৭ ধারায় আসামিকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ (পুলিশি রিমান্ড) সংশোধনে হাইকোর্টের দেয়া রায় বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। সকালে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ রায় দেন। এ রায়ের ফলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ও পুলিশি হেফাজতে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ সংক্রান্ত হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছিলেন, সেটিই বহাল থাকল।

১৯৯৮ সালে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী এলাকা থেকে ইনডিপেনডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শামীম রেজা রুবেলকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই বছরের ২৩ জুলাই মিন্টো রোডে গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে শামীমের মৃত্যু হয়।

হেফাজতে ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে তদন্ত কমিটির সুপারিশের আলোকে ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারা (বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার) ও ১৬৭ ধারায় আসামিকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ (পুলিশি রিমান্ড) নিয়ে ২০০৩ সালের ৭ এপ্রিল হাইকোর্ট কয়েক দফা নির্দেশনাসহ রায় ঘোষণা করেন। প্রায় দুই দশক পর হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে সরকারের করা আপিল খারিজ করেন আপিল বিভাগ।

এদিকে সীমান্ত হত্যা বন্ধে বিএসএফ প্রধানের প্রতিশ্রুতির পরও একই ঘটনা অব্যাহত থাকা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আগের চেয়ে সীমান্ত হত্যা কমে আসছে। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এ হত্যা যেন শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা যায় সে চেষ্টা আমরা করছি।

পাবনায় তিন সহোদরসহ ৫ যুবককে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এটা আমার জানা নেই। এ রকম ঘটনা ঘটে থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।