মেইন ম্যেনু

আদালতের নিষেধাজ্ঞায় ‘খালেদার ইফতার’ বাতিল

আদালতের নিষেধাজ্ঞায় রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ের বলরুমে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) ইফতার মাহফিল বাতিল হয়ে গেছে। রোববার বিকেলে এ ইফতার পার্টিতে
বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল।

এনপিপি’র চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ‘রোববার সকালে সোনারগাঁও হোটেল কর্তৃপক্ষ আমাদের জানিয়েছেন যে, রমনা মডেল থানা পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপের পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের এই ইফতার মাহফিলের অনুমতি বাতিল করেছে। ফলে আমরা আজকের ইফতার মাহফিলটি করতে পারছি না।’

এ ব্যাপারে রমনা জোনের পুলিশের সহকারি কমিশনার শিবলী নোমান বলেন, ‘আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় আমরা সোনারগাঁও হোটেল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছি। তারা ব্যবস্থা নিয়েছে।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর বাধার কারণে আজ (রোববার) হোটেল সোনারগাঁওয়ে অনুষ্ঠেয় ইফতার মাহফিল বাতিল করেছে এনপিপি।’

গত ৮ জুন শেখ শওকত হোসেন নিলুর নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) পক্ষ থেকে রমনা মডেল থানায় ফরিদুজ্জামান ফরহাদের নেতৃত্বাধীন এনপিপির ইফতার মাহফিল যাতে না হয়, সেজন্য একটি জিডি করা হয়।

পরে নিলুর দল সিনিয়র সহকারি জজ চতুর্থ আদালতে ওই ইফতার অনুষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি আবেদন জানায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করে সংশ্লিষ্ট হোটেল কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন।

খালেদা জিয়া নিজে এতিম-ওলামা-মাশায়েখ, রাজনীতিবিদ, পেশাজীবী ও কূটনীতিকদের সম্মানে চারটি ইফতার পার্টি দেন। এরপর তিনি ২০ দলীয় জোটের শরিকদের ইফতার মাহফিলে যোগ দিচ্ছেন। গতকাল তিনি হোটেল পূর্বানীতে জাগপার ইফতার পার্টিতে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নিয়েছিলেন। এর আগে, জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) ইফতারেও প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন তিনি।