মেইন ম্যেনু

তাভেল্লা সিজার হত্যা

আদালতে এসে আর স্বীকারোক্তি দিলেন না কাইয়ুমের ভাই মতিন

ইতালিয়ান নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যা মামলায় ঢাকা মহানগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল কাইয়ুমের ছোট ভাই এমএ মতিনকে রিমান্ড শেষে জেলহাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান আসামিকে জেলহাজতে পাঠানোর এই আদেশ দেন।

মতিনকে গত ৫ নভেম্বর ৮ দিন এবং গত ১৪ নভেম্বর ৫ দিনের রিমান্ড নেয়ার অনুমতি পেয়েছিল পুলিশ। তবে দ্বিতীয় দফায় ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হলেও দুইদিনের রিমান্ড শেষে স্বীকারোক্তি দেয়ানোর জন্য পুলিশ তাকে মঙ্গলবার আদালতে হাজির করে। কিন্তু আদালতে এসে মতিন স্বীকারোক্তি দিতে অস্বীকার করলে বিচারক তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত ৪ নভেম্বর রাত ১টার দিকে যশোরের বেনাপোল বাজার থেকে এমএ মতিনকে আটক করা হয় বলে পুলিশের দাবি।

এর আগে মামলাটিতে শ্যুটার রুবেল, মিহাজুল আরেফীন রাসেল ওরফে ভাগ্নে রাসেল ওরফে কালা রাসেল, শাখাওয়াত হোসেন শরীফ ও চাকতি রাসেল নামে ৪ জন গ্রেপ্তার হন। এদের মধ্যে প্রথম ৩ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। চাকতি রাসেল এখানো রিমান্ডে রয়েছেন। স্বীকারোক্তি দেয়া তিনজন এমএ মতিন এই ঘটনায় জড়িত মর্মে প্রকাশ করায় তাকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশের দাবি।

উল্লেখ্য, গত ২৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশান-২ এর ৯০ নম্বর সড়কে জগিং করার সময় দুবৃর্ত্তদের গুলিতে নিহত হন ইতালিয়ান নাগরিক ও নেদারল্যান্ডসভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা আইসিসিওবিডির কর্মকর্তা তাভেল্লা সিজার। এ ঘটনায় ইসলামপন্থি জঙ্গিযোগের প্রসঙ্গও আসে।