মেইন ম্যেনু

আনফরচুনেট জার্নিতে শায়লা সাবি

ইট-কাঠ আর পাথরের তৈরি শহরের চার দেয়ালে আটপৌরে জীবন। অনেকটা একঘেঁয়ে। তারপরও এ তো জীবন। এ যেন আপন গতি আর ছন্দে চলতে চায়। একটু ফুসরত পেলেই হল। শহরের এ কাঠখোট্টা জীবন থেকে প্রকৃতির আপন আলোয় নিজেকে বিলিয়ে দিলে জীবনও যেন আপন ছন্দ ফিরে পায়।
পাঠক এত কথা বলার কারণ এবার বলছি, এ প্রজন্মের ব্যস্ততম অভিনেত্রী শায়লা সাবি। শহুরে জীবনে অনেকটা লেখার শুরুর বর্ণনার মতই জীবনযাপন করছিলেন তিনি। আর এ জীবনের ছক থেকে বের হতেই বন্ধুদের নিয়ে একটু জল, পাহাড় ও জঙ্গলে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন। যেই কথা সেই কাজ।
এরই মধ্যে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনাও দিয়ে দিয়েছেন। আর ঠিক সময়মত যথাযথ স্থানেও পৌঁছে গিয়েছেন। এরপর বন্ধুদের নিয়ে ঘুরতে বেরিয়ে গিয়েছেন। অনেকটা গন্তব্যহীন। মন যে দিকে যায়। হঠাৎ একটা সময় গিয়ে পাহাড় পেরিয়ে জঙ্গলের মধ্যে পৌঁছে যান। কিন্তু তারা কখন যে এতদূরে চলে এসেছেন, তা কারও মনেই নেই।
ঠিক এসময় হুট করেই বিধিবাম। অগত্যা বিপদ। দুই বন্ধু আটকা পরলেন অপহরণকারীর কবলে। এভাবেই ঘটনাটি এগিয়ে যায়। পাঠক এ ঘটনা বাস্তবে নয়। দেখা যাবে ‘দি আনফরচুনেট জার্নি’ নামের একটি নাটকে। এর চিত্রনাট্য লিখেছেন হিমু হিমেল। পরিচালনা করবেন এম ডি কনক। এছাড়া নাটকের মূল চরিত্রে অভিনয় করবেন শায়লা সাবি।
আর বাস্তবে শায়লা সাবির এ নাটকেও নাম শায়লা সাবি। এ নাটকে তার সহ-শিল্পীরা হলেন- নাভিদ মুনতাসির, শহিদ, সুজন, মামুন, শুভ, সৌমি ও নওশীন। শায়লা সাবি জানিয়েছেন, আজই তারা বান্দরবনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। আজ রাত থেকেই থানচির আশেপাশে বিভিন্ন লোকেশনে নাটকটির দৃশ্যধারণ শুরু হবে। আর ২ এপ্রিল ঢাকায় ফিরবেন।
এছাড়া ঈদের আগে যে কোন একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে। চলচ্চিত্রের ব্যস্ততা নিয়ে জানালেন, ‘আমার অভিনীত ‘আদি’ নামে ছবিটির শুটিং শেষের পথে। এছাড়া ‘মায়া’ নামের ছবিটিরও কাজ এগিয়ে চলছে। অপরদিকে ঈদ উপলক্ষে প্রচারিত হবে এমন কয়েকটি নাটকের কাজ করছি। কয়েকটি খন্ড নাটকে অভিনয়ে বিষয়েও কথাবার্তা চলছে।