মেইন ম্যেনু

আনু মুহাম্মদের হুমকিদাতা সিমের মালিক শনাক্ত

তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ, বিদ্যুৎ ও বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, তার স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হকসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে হুমকি দিয়ে এসএমএস পাঠানো মোবাইল নাম্বারের গ্রাহককে শনাক্ত করেছে পুলিশ।

এসএমএস পাঠানো মোবাইলের মালিক আওয়ামী ওলামা লীগের কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক হাফেজ ফায়যুর রহমান। তিনি সিলেটের স্থানীয় দৈনিক সিলেটের ডাক-এর সাহিত্য পাতায় কাজ করেন।

মোবাইল সিমের গ্রাহক ফায়যুর রহমানের ঘনিষ্ঠদের দাবি, তিনি ওই হুমকি দেননি। অন্য কেউ তার নাম্বার ক্লোন করে এ কাজটি করে থাকতে পারে। এর আগেও তার মোবাইল নাম্বার ক্লোন করে অর্থমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী, আইনমন্ত্রীসহ ১৫৩ জন বিশিষ্ট নাগরিককে হুমকি দেওয়া হয়। যে মামলায় দীর্ঘদিন কারাভোগের পর ফায়যুর অব্যাহতি পেয়েছেন।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালসহ অন্যদের হুমকির বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত চলছে। যে মোবাইল নাম্বার থেকে এসএমএস দেওয়া হয়েছে, তার মালিককে শনাক্ত করা হয়েছে। তবে তিনি এসএমএস পাঠাননি বলে দাবি করছেন। এখন অধিকতর তদন্ত চলছে, মোবাইলের কললিস্ট সংগ্রহসহ অন্যান্য তথ্যপ্রযুক্তিগত বিষয়ে তদন্ত কাজ চলছে। তদন্ত শেষে জানা যাবে মোবাইল নাম্বারের মালিক হুমকি দিয়েছেন কি না।

231

সিলেট কোতোয়ালী থানার সহকারী কমিশনার নুরুল হুদা আশরাফি জানান, তদন্তকাজ এগিয়ে চলছে। তদন্তের ফলাফল পরে জানানো হবে।

দৈনিক সিলেটের ডাক-এর ডেপুটি চিফ রিপোর্টার মুহম্মদ তাজ উদ্দিন জানান, ফায়যুর সিলেটের ডাক-এর সাহিত্যপাতায় কাজ করত। এর আগেও তার নাম্বার ক্লোন করে কয়েকজন মন্ত্রীসহ দেশের বিশিষ্টজনদের কাছে হুমকি দিয়ে এসএমএস করা হয়। যার কারণে সে দীর্ঘদিন কারাভোগ করে।

ফায়যুরের বন্ধু নোমান বিন আরমান জানান, ফায়যুরের মোবাইল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তার সাথে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। মুক্তাক্ষর নামের একটি সাহিত্য সংগঠনের বিরোধকে কেন্দ্র করে ফায়যুরের মোবাইল নাম্বার ক্লোন করে দেশের বিশিষ্টজনকে হুমকি দেওয়া হয়। এ ঘটনায় ২০১৩ সালে ফায়যুরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে চার্জশিটে ফায়যুরকে অব্যাহতি দিয়ে আবদুল হকসহ ৩ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দেন ডিবির এসআই সনৎ দেব।

জানা যায়, এরআগে ফায়যুরের মোবাইল নাম্বার ক্লোন করে বিভিন্ন জনের কাছে হুমকি দিয়ে বার্তা পাঠানো হয়েছিল।

এর আগে, বুধবার রাতে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল ও তার স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হককে হত্যার হুমকি দিয়ে বার্তা পাঠানো হয়। ০১৬২৯৯৬৭৫৫১ নাম্বার থেকে এসএমএস পাঠিয়ে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের পরিচয়ে এ হুমকি দেওয়া হয়।

অধ্যাপক আনু মুহাম্মদকেও ওই একই নাম্বার থেকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।