মেইন ম্যেনু

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছেন না আমির!

২০১০ সালে ইংল্যান্ডে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারির জন্য সব ধরণের ক্রিকেটে ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মোহাম্মদ আমির। সেই নিষেধাজ্ঞা আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হয় ১ সেপ্টেম্বর। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি ছাড় দেয় আমিরকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার। তবে এখনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের কথা ভাবছেন না আমির। তার লক্ষ্য সামনের সময়টাতে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফর্ম করা।

মোহাম্মদ আমির মনে করেন, এখনই যদি তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার কথা ভাবেন তাহলে তা হবে অপরিণত ভাবনা। তার চেয়ে বরং ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করে যাওয়া ভালো। তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্তে আমার নজর ঘরোয়া ক্রিকেটের দিকে। পাকিস্তানের পক্ষে কবে কখন খেলতে পারবো তা নিয়ে এখন ভাবলে তা হবে অপরিণত। পাকিস্তানের হয়ে কবে খেলতে পারবো তা নিয়ে আমি এখন ভাবছি না। আমি আমার ঘরোয়া ফর্মের দিকে চোখ রেখেছি। তারপর বাকিটা নির্ভর করবে নির্বাচকদের ওপর।’

এছাড়াও ধাপে ধাপে এগিয়ে যেতে চান আমির। নিজেকে তৈরী করতে চান পুরোপুরি। তিনি বলেছেন, ‘আমাকে ধাপে ধাপে এগিয়ে যেতে হবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনেক কঠিন। এটা কোনো কৌতুক না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেক চাপ থাকে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার আগে আমাকে নিজেকে পুরোপুরি তৈরি করে নিতে হবে।’

সম্প্রতি কায়েদ-ই-আজম বাছাই ম্যাচে সুই সাউদার্ন গ্যাস কোম্পানির হয়ে জারাই তারাকিয়াতি ব্যাংক লিমিটেডের বিপক্ষে পেয়েছেন সাত উইকেট। ম্যাচের প্রসঙ্গ টেনে আমির বলেছেন, ‘আমি খুব সন্তুষ্ট সাত উইকেট পেলাম বলে। নিষেধাজ্ঞার পর এটা ছিল আমার প্রথম চারদিনের ম্যাচ। ফ্ল্যাট উইকেটে এর চেয়ে ভালো কিছু আশা করতে পারতাম না। মনে হচ্ছে দিনে দিনে আমার বোলিংয়ে উন্নতি হচ্ছে। আমার আত্মবিশ্বাসও এখন অনেক বেশি।’

ফিটনেস ও সামর্থ্য বুঝতে চারদিনের ম্যাচ তাকে অনেক সহায়তা করবে বলে বিশ্বাস আমিরের। টেকনিক্যালি ও মানসিকভাবেও তিনি আরো ভালো অবস্থানে চলে যাবেন বলে আশা করছেন। আমিরের ভাষায়, ‘আমি আমার ফেরার খুব গুরুত্বপূর্ণ অবস্থার দিকে পৌঁছাচ্ছি। চারদিনের ক্রিকেট খেলে আমি আমার ফিটনেসের পরীক্ষা নিতে পারবো। এটা সামর্থ্যের প্রমাণ দেবে।’

সূত্রঃ ইএসপিএন ক্রিক ইনফো



« (পূর্বের সংবাদ)