মেইন ম্যেনু

আন্তর্জাতিক মানের পথে এগিয়ে যাচ্ছে বেরোবি : ৮ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে উপাচার্য

এইচ.এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি : ‘বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এখন আন্তর্জাতিক মানের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন সমস্যা কাটিয়ে ওঠে সমসাময়িক বিশ্ববিদ্যবিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সম্ভাবনাময় বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টির। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ম প্রতিষ্ঠা বার্ষির্কী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় জাতীয়ভাবে বিজয়ী হয়ে এখন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অংশ নিচ্ছে। আন্তর্জাতিক মানের ল্যাবরেটরিসহ শিক্ষা সহায়ক প্রয়োজনীয় সুবিধা নিশ্চিত করা হচ্ছে। রোকেয়ার আদর্শ ও দর্শনকে লালন করে ইতিমধ্যে উল্লেখযোগ্য কাজ হয়েছে। বেগম রোকেয়ার অন্যতম একটি দর্শন হলো সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষকে মূল ধারার সাথে সম্পৃক্ত করা। বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁর (রোকেয়ার) দর্শনকে লালন করে সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে হরিজন, তৃতীয় লিঙ্গ (হিজরা) এবং বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীদের জন্য ভর্তির ক্ষেত্রে কোটা চালু করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এই উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে সকলের সহযোগিতাসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়, প্রজনন ও শিশু স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. হালিদা হানুম আখতার, কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সাইদুল হক, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ তাজুল ইসলাম, বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন মোঃ ফেরদৌস রহমান ও উপাচার্যের সহধর্মিনী মিসেস গুল নাহার নবী উপস্থিত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. নাজমুল হক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ক্যাম্পাসে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশ নেন। বাদ্যের তালে তালে নানা রঙ্গের ব্যানার, ফেস্টুন, মুখোশ, বেলুনসহ নানা আয়োজনে শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও শান্তির প্রতিক পায়রা উড়িয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী।

বিকেলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের সঙ্গীত পরিবেশক রথীন্দ্রনাথ রায়।

উল্লেখ্য, গত ১২ অক্টোবর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা দিবস হলেও ছুটিজনিত কারণে ১৯ অক্টোবর বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এ দিবস উদযাপন করা হচ্ছে।