মেইন ম্যেনু

আপনার বুড়ো আঙুলে রয়েছে এই লক্ষণ? তাহলে ভাগ্য আপনার হাতের মুঠোয়

আপনার বুড়ো আঙুলের নমনীয়তা কেমন, তা পরীক্ষা করে বোঝা যায়, আপনার ব্যক্তিত্ব কী প্রকৃতির।

লক্ষণশাস্ত্র মনে করে, আপনার বুড়ো আঙুলের গঠনের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে আপনার ব্যক্তিত্ব এবং আপনার ভাগ্য। কী রকম? বলা হয়, আপনার বুড়ো আঙুলের নমনীয়তা কেমন, তা পরীক্ষা করে বোঝা যায়, আপনার ব্যক্তিত্ব কী প্রকৃতির। কী ভাবে করতে হবে এই পরীক্ষা? প্রথমে আপনার যে কোনও হাতের বুড়ো আঙুলটিকে একেবারে শিথিল করে দিন। এ বার অন্য হাত দিয়ে বুড়ো আঙুলের ডগাটি ধরে বৃত্তাকারে ঘোরান। যদি একেবারে বাধাহীন ভাবে আঙুলটিকে ঘোরানো যায়, এবং বুড়ো আঙুলের ডগাটিকে পিছন দিকে ঠেললে যদি ডগাটি পিছন দিকে বেঁকে

যায়, তা হলে বুঝতে হবে আপনার বুড়ো আঙুল নমনীয়। আর যদি স্বচ্ছন্দ ভাবে বুড়ো আঙুলটি ঘোরানো না যায়, আর ডগাটি পিছনের দিকে না বাঁকে, তা হলে আপনার বুড়ো আঙুল অনমনীয়। এ বার দেখে নিন, এই দুই ধরনের বুড়ো আঙুল আপনার ভাগ্য ও ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে কোন ইঙ্গিত দেয়।

১. যদি আপনার বু‌ড়ো আঙুল নমনীয় হয়: তা হলে পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে আপনি সহজেই মানিয়ে নিতে পারেন। উদ্বেগ বা উত্তেজনা আপনাকে চট করে কাবু করতে পারে না। আপনি সহজেই মানুষের মন জয় করে নিতে সক্ষম। বিপদে-আপদে আপনার পরিচিতজনেরা যে আপনার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবেন সে ব্যাপারে আপনি নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন, এবং তাঁদের সাহায্য নিয়ে আপনি সহজেই সাফল্যের শিখর স্পর্শ করতে পারবেন। খরচ-খরচার ব্যাপারে আপনি দরাজদিল।

২. যদি আপনার বুড়ো আঙুল অনমনীয় হয়: তা হলে আপনি রক্ষণশীল এবং গোপণতাপ্রিয় স্বভাবের। চট করে অন্য মানুষের পরামর্শ বা সাহায্য আপনি গ্রহণ করতে পারেন না। নিজের লক্ষ্য পূরণের জন্য আপনি মাথার ঘাম পায়ে ফেলতেও প্রস্তুত থাকেন। এবং সেই কারণেই অনেক সময়ে বন্ধুবান্ধবরা আপনাকে ‘একগুঁয়ে’ আখ্যা দেন। জীবনকে খুব সহজভাবে নেওয়া আপনার ধর্ম নয়। কোনও রকম আঘাত আপনাকে সাময়িক ভাবে কাবু করে ফেলে ঠিকই, কিন্তু নিজের মানসিক দৃঢ়তার জোরে সেই পরিস্থিতি আপনি কাটিয়েও ওঠেন।-এবেলা