মেইন ম্যেনু

আপনি খুনি, আপনি সিরিয়াল কিলার

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহম্মদ নাসিম বলেছেন, লন্ডনে বসে খালেদা জিয়া যেভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আক্রমণ করেছেন তা কোনো কথা হতে পারে না। কোনো ভদ্রলোক বলতে পারেন না। কোনো ভদ্র লোকের পক্ষে এ কথা বলা সম্ভব নয়। আপনার মুখে এ কথা মানায় না। আপনি খুনি, আপনি সিরিয়াল কিলার। লন্ডনে বসে চক্রান্ত করে বাংলাদেশে বিদেশিসহ সব ধরণের হত্যাকাণ্ড আপনিই ঘটাচ্ছেন।

বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর তোপখানা রোডের বিএমএ ভবনের অডিটোরিয়ামে এম মনসুর আলী স্মৃতি সংসদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন নাসিম। জেলা হত্যা দিবস উপলক্ষে এ সভায় আয়োজন করা হয়।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সমালোচনা করে তিনি বলেন, যেদিন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়েছিল, সেদিন আপনারা কোথায় ছিলেন। আমেরিকা, কানাডা খুনিদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছে। তাদের মুখে এসব কথা মানায় না।

জাতীয় চার নেতার স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, বাঙালি জাতির জন্য জেলহত্যা দিবস যেমন কষ্টের দিন, আমার জন্যও এই দিনটি একটি কষ্টের দিন। আমি আমার বাবার লাশ দেখতে পারিনি। বাবার জানাজায় অংশগ্রহণ করতে পারিনি। তারপরেও আমার দুঃখ নেই। কারণ, আমি মোস্তাকের মতো বেইমানের সন্তান নই।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বিদেশিদের উদ্দেশে বলেন, আজকে যারা সন্ত্রাস, হত্যা ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে শেখ হাসিনার বিজয়কে স্তদ্ধ করতে চায় তাদেরও মুরব্বি আছে। আপনার বান্দরের লেজে আগুন দিয়ে সারা পৃথিবী তছনছ করবেন আর বাংলাদেশে এসে চোরকে বলবেন চুরি করতে আর গৃহস্থকে বলবেন সজাগ থাকতে। এই খেলা বাংলাদেশের মানুষ বুঝে ফেলেছে। তা হবে না। এসব চক্রান্ত ও অশুভ শক্তিরা জয়ী হবে না।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার পর যেসব সামরিক অফিসারকে ফাঁসি দেয়া হয়েছে তারা সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করতেন। তাই তাদের দেখে দেখে হত্যা করা হয়েছে।

এম মনসুর আলীর স্মৃতি চারণ করে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কারাগারের তিন নম্বর সেলে দেখা করতে গেলে তিনি একটি গেঞ্জি বের করে বললেন জানো এটি কার গেঞ্জি? আমি বললাম জানবো কী করে? তখন তিনি বললেন, এটি বঙ্গবন্ধুর গেঞ্জি। আমাকে যখন জেলে নিয়ে আসা হয়েছিল তখন সঙ্গে করে এনেছি। এটাই ছিল নেতার প্রতি তার আনুগত্য ও শ্রদ্ধা।

এ আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কামরুল হাসান খান, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক প্রমুখ।