মেইন ম্যেনু

‘আপসহীন’ নেত্রীর তালিকায় হাসিনা তৃতীয়, খালেদা চতুর্থ

বিশ্বের ‘আপসহীন’ ১০ মুসলিম নেত্রীর তালিকায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তৃতীয় এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। যুক্তরাজ্যভিত্তিক ব্রাউন গার্ল ম্যাগাজিন কর্তৃক প্রকাশিত এক তালিকায় এই তথ্য উঠে এসেছে। তালিকায় প্রথম স্থানে আছেন পাকিস্তানের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো। ওই তালিকা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে হাফিংটন পোস্ট।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সমগ্র বিশ্বে মুসলিম নারীকে নির্যাতিত হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। অথচ এর মধ্যে কিছু মুসলিম নেত্রী আছেন যারা নিজ গুণে সারা বিশ্বের আলোকবর্তিকা হয়েছেন। নিজের যোগ্যতায় শত প্রতিকূলতা মোকাবেলা করে রাষ্ট্র পরিচালনার মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। ব্রাউন গার্ল ম্যাগাজিনে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে বলা হয়েছে, তিনি বাংলাদেশের বর্তমান দশম জাতীয় সংসদের সরকারদলীয় প্রধান এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা।

তিন বার তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। বর্তমানে দেশ শাসন করে চলেছেন শক্ত হাতে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী সম্পন্ন করেছেন।

বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে বলা হয়েছে, তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপারসন। জন্মগ্রহণ করেছেন ১৯৪৫ সালে। তিনি তিনবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বাংলাদেশের প্রথম ও মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী। স্বামী প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর দলের হাল ধরেন তিনি।

তালিকায় শীর্ষস্থানে থাকা ‘ডটার অব ইস্ট’ খ্যাত পাকিস্তানের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো ১৯৫৩ সালের ২১শে জুন করাচিতে জন্মগ্রহণ করেন। মুসলিম বিশ্বের প্রথম ও পাকিস্তানের একমাত্র নারী প্রধানমন্ত্রী তিনি। তিনি দুই বার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। বাবা সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টোর মৃত্যুর পর পকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) হাল ধরেন তিনি। ২০০৭ সালের ২৭শে ডিসেম্বরে রাওয়ালপিন্ডিতে এক জনসভায় ভাষণদানকালে আততায়ীর গুলিতে নিহত হন। তিনি হার্ভার্ড ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজনীতির ওপর পড়াশোনা করেন। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার পঞ্চম প্রেসিডেন্ট মেঘবতী সুকর্ণপুত্রী।

দেশটির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তিনি ২০০১ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ইন্দোনেশিয়ার প্রজাতান্ত্রিক দল পিডিআই-এর চেয়ারম্যান তিনি। তালিকায় ৫ম স্থানে রয়েছেন কসোভোর বর্তমান প্রেসিডেন্ট আতিফিতে জাহজাগা। তিনি ২০১১ সালে কসোভোর প্রথম নির্বাচিত নারী প্রেসিডেন্ট শপথ গ্রহণ করেন তিনি । ৬ষ্ঠ স্থানে থাকা তানসু সিলার তুরস্কের প্রথম ও একমাত্র নারী প্রধানমন্ত্রী । ১৯৯৩ সালে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করে তিনি ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।

এর পর রয়েছেন সেনেগালের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী মামে মাদিওর বোয়ে। তিনি ২০০১ মার্চ থেকে ২০০২ নভেম্বর পর্যন্ত দেশটির প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। তালিকার ৮ম স্থানে সেনেগালের দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী আমিনাতা তৌরে আর নবম স্থানে রয়েছেন আফ্রিকার দেশ মালির মুসলিম নারী প্রধানমন্ত্রী সিসে মরিয়ম কাইদামা সিদিবি। তালিকার সর্বশেষ হচ্ছেন ভারত মহাসাগরের দ্বীপ মরিশাসের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট খ্যাতিমান জীববিজ্ঞানী আমিনা গারিব ফাকিম। গত জুনে মরিসাসের ষষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন ৫৬ বছর বয়সী আমিনা। যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অব সারে ও ইউনিভার্সিটি অব এক্সটার থেকে পড়শোনা করা আমিনা মরিশাস বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগেরও চেয়ারপারসন।-এমজমিন