মেইন ম্যেনু

আফগানদের আরেকটি ইতিহাস

এ যেন রূপকথার গল্প। একটা দেশে ক্রিকেট অবকাঠামো বলতে কিছুই নেই, এমনকি অনুশীলন করার মতোও কোন মাঠ নেই। অনুশীলন করতে যেতে হয় পাকিস্তানের সীমান্তবর্তী এলাকা পেশোয়ারে।

এমন একটি দেশ যখন কোন টেস্ট খেলুড়ে দলকে হারায় সেটা বড় খবর হবে নয় তো কী? রূপকথার মতো সেই কাজটি একের পর এক করে যাচ্ছে আফগানরা। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ এ জেতার পর দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজেও জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশই করে ছাড়লো মোহাম্মদ নবীরা। বুধবার তারা স্বাগতিকদের ৫ উইকেটে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে টি২০ সিরিজ।

এদিন নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ১৯০ রান তুলেছিল জিম্বাবুয়ে। টি২০ ক্রিকেটে জয়ের জন্য এই স্কোরকে আদর্শই বলতে হবে। তারওপর এলটন চিগুম্বুরারা খেলছে ঘরের মাঠে। আর প্রতিপক্ষও কোন টেস্ট খেলুড়ে দল নয়।

না, এসবের কোন কিছুই অদম্য আফগানদের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। তারা এক বল হাতে রেখেই ৫ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে। একই সঙ্গে রচনা করেছে আফগান ক্রিকেটে আরেকটি নতুন ইতিহাস। এই প্রথম যে দলটি কোন টেস্ট খেলুড়ে দলের বিপক্ষে টি২০ সিরিজ জিতলো!

জিম্বাবুয়ের ১৯০ রান তাড়া করতে নেমে আফগানদের জয়ের ভিতটা গড়ে দিয়ে যান ওপেনার উসমান গনি এবং গুলবাদিন নাইব। দু’জনই পেয়েছেন ফিফটির দেখা। গনি ৪৫ বলে ছয় চার আর তিন ছক্কার সাহায্যে ৬৫ এবং নাইব ৫৬ রান করেছেন ৩১ বলে সাত চারে। এছাড়া মোহাম্মদ শাহজাদ ২৪, সাদিক ১১রান করেন। চামু চিবাবা ৩৭ রান দিয়ে পেয়েছেন ২ উইকেট।

এরআগে টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক চিগুম্বুরা। নির্ধারিত ২০ ওভারে জিম্বাবুয়ে তোলে ১৯০ রান। ফিফটি পেয়েছেন শন উইলিয়ামস। তিনি মাত্র ২৬ বলে আট চার, দুই ছক্কায় করেন ৫৪ রান।

এছাড়া মুতামবামি ৩৩ বলে ৪৩, চিগুম্বুরা ২৮ বলে ৩৩, সিকান্দার রাজা ২১ রান করেন। দৌলত জাদরান ২৪, আমির হামজা ২৬ এবং নবী ৪০ রানের বিনিময়ে পেয়েছেন ২টি করে উইকেট। ম্যাচসেরা পুরস্কার জিতেছেন নাইব।