মেইন ম্যেনু

আবারো নারী সাংবাদিকের সঙ্গে বিতর্কে জড়ালেন গেইল

ছক্কা চারের মাধ্যমেই মানুষ গেইলকে চেনে। ব্যাট হাতে গেইলের রুদ্রমূর্তি দেখেছে সকলে কিন্তু মাঠের বাইরে গেইল যেন ঠিক নিজেকে ধরে রাখতে পারছেন না। আবারো এক নারী সাংবাদিকের সাথে বিতর্কে জড়ালেন এই ক্যারিবিয়ান দানব ব্যাটসম্যান। দ্য টাইমের নারী সাংবাদিক শার্লট অ্যাডওয়ার্ডসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে উঠে আসে নারীদের নিয়ে গেইলের কিছু দ্ব্যর্থ মন্তব্য।

ব্যাঙ্গালুরুতে দেয়া এই সাক্ষাৎকারে গেইল বলেন, ‘আমার ব্যাট অনেক, অনেক, অনেক বড়। আসলে বিশ্বের সবচেয়ে বড়।’ ঠিক পরক্ষনেই বলেন, ‘তুমি কি এটা তুলতে পারবে? তোমার দু হাত ব্যবহার করতে হবে এটাকে তুলতে।’

নারী পুরুষের সম অধিকার নিয়ে গেইলকে প্রশ্ন করা হলে গেইল উত্তরে বলেন, ‘নারীদের সম-অধিকার থাকা উচিত এবং তারা সেটি পাচ্ছেনও। নারীরা যা ইচ্ছা তা-ই করার সুযোগ পাচ্ছেন। জ্যামাইকান মেয়েরা তো তাদের অধিকার নিয়ে বেশ সরব।’

কয়েকদিন আগেই গেইল কন্যা সন্তানের বাবা হন। কন্যার নামও রেখেছেন ‘ব্লাশ’। এরই মধ্যে বাবার দায়িত্বটাও পালন করা শুরু করে দিয়েছেন গেইল। ‘বাচ্চা কোলে নিয়ে ওর রান্না করার দরকার নাই। আমরা চাইলেই বাইরে থেকে খাবার কিনে আনতে পারি। যে আগে বাসায় ফেরে, সেই রান্না করে।’ তবে বাচ্চা ডায়পার বদলাতে রাজি থাকলেও রান্না করতে করতে রাজি নন গেইল।

এটা বলার পরেই গেইল বলেন, ‘মেয়েদের আসলে উচিত পুরুষদের সন্তুষ্ট রাখা। যখন একজন পুরুষ ঘরে আসবেন, খাবার যেন টেবিলেই থাকে। এটা গুরুত্বপূর্ণ। মেয়েদের উচিত তাঁদের স্বামীকে জিজ্ঞেস করা, তাঁরা কী পছন্দ করেন, এবং সে অনুযায়ীই রান্না করা উচিত।’

গতবছর বিগ ব্যাশে অস্ট্রেলিয়ান নারী সাংবাদিক মেল ম্যাকলাফলিনকে সাক্ষাৎকার দেয়ার প্রাক্বালে গেইল বলেছিলেন, ‘তোমার চোখগুলো সুন্দর, আশা করছি আমরা ম্যাচটি জিততে পারবো তারপর আমরা ড্রিংক করবো। ডোন্ট ব্লাশ, বেবি।’ এমন সব আপত্তিকর কথার জন্যেই গেইলকে সেবার দশ হাজার অস্ট্রেলিয়ান ডলার জরিমানা করা হয়েছিল। কিন্তু এবার হয়তো আরো বড় কোন জরিমানার সম্মুখীন হতে পারেন গেইল।