মেইন ম্যেনু

আমলার সামনে কেঁদে ফেললেন চট্টগ্রামের ডাক্তার!

বাংলাদেশের বিপক্ষে চলতি ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে অংশ নিতে সোমবার চট্রগ্রামে পৌঁছেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল। তবে বর্ণবাদবিরোধী নেতা নেলসন মেন্ডেলার জন্মদিন উপলক্ষে প্রোটিয়া দলের খেলোয়াড়রা গতকাল মঙ্গলবার ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন।

আগামী ১৮ জুলাই ম্যান্ডেলার জন্মদিন হওয়ায় প্রিয় এই নেতার সম্মানে আমলা-ডুমিনিরা বেছে নিয়েছেন এই অভিনব উদ্যোগ।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক শামীম হাসান এমন মহৎ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ক্যান্সার আক্রান্ত এই শিশুদের অনেকেই হয়তো বেশি দিন বাঁচবে না। কিন্তু এই সামান্য ভালোবাসা আর উপহারে তারা আনন্দে আপ্লুত। ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। হাসিম আমলা- ডুমিনিদের সামনে এ সময় এই অধ্যাপক ডাক্তারও আপ্লুত হয়ে পড়েন।

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের বরণ করে নিয়েছেন প্রোটিয়া ক্রিকেটাররা। শিশুদের সঙ্গে ছবি তুলেছেন, অটোগ্রাফ দিয়েছেন আর প্রত্যেকের হাতে ছোট্ট ব্যাটও তুলে দিয়েছেন তারা।

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড (সিএসএ) ও চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের যৌথ উদ্যোগে প্রায় ১৫ মিনিটের এই ‘মিলনমেলা’র আয়োজন করা হয়। সিএসএ এমন একটি আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছিল চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কর্মকর্তাদের। তাঁরা প্রস্তাবটি লুফে নিয়ে ১৬ জন ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুকে নিয়ে আসেন স্টেডিয়ামে। দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারদের সান্নিধ্যে আসতে পেরে শিশুরাও মহাখুশি।

মারণব্যাধি শরীরে বাসা বাঁধায় এদের কেউ-কেউ হয়তো খুব বেশি দিন বাঁচবে না। তবে সব কষ্ট-যন্ত্রণা তুলে প্রোটিয়া ক্রিকেটারদের কাছ থেকে উপহার ও ভালোবাসা পেয়ে তারা উচ্ছ্বসিত।

চট্টগ্রামের বড় কুমিরা অঞ্চলের সাগর আলী তাদেরই একজন। তিন বছর ধরে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে চলা সাগর আনন্দে আত্মহারা, ‘এত বড় তারকাদের কাছে পেয়ে খুব ভালো লাগছে। তাদের কাছ থেকে উপহার পেয়ে আমরা খুব খুশি।’